• বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২০ ১৪২৯

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসায় ওয়াশিংটন পোস্ট নভেম্বরের শেষের দিকে জাপান সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ ভবনে সেমিনারে একাত্তরের গণহত্যার স্বীকৃতি দাবি জনগণের দ্বারপ্রান্তে সেবা নিশ্চিত করতে হবে: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ইউজিসির এপিএ মূল্যায়নের স্কোরিংয়ে হাবিপ্রবির দৃশ্যমান উন্নতি

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রেরণার উৎস ছিলেন বঙ্গমাতা: পলক

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৯ আগস্ট ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর আন্দোলন, সংগ্রামের নেপথ্যের প্রেরণাদায়ী এবং প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অফুরান প্রেরণার উৎস ছিলেন মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সমগ্র রাজনৈতিক জীবনে ছায়ার মতো অনুসরণ করে তার কর্মকাণ্ডকে পূর্ণতা দিয়েছেন বেগম মুজিব।

গতকাল সোমবার আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আইডিয়া প্রকল্পের আওতায়  নারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়ারের বিসিসি মিলনায়তনে প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বিসিসির ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক রণজিৎ কুমার, ই-ক্যাবের সভাপতি শমী কায়সার, উই’র সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গমাতার জীবন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাদামাটা জীবন যাপন করেন।

নারী উদ্যোক্তাদের ব্যর্থ হওয়ার হার পুরুষদের চেয়ে কম- উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, মায়েরা-মেয়েরা মিতব্যয়ী-সাশ্রয়ী। আমি মনে করি এই উদ্যোক্তাদের দেওয়া অনুদান বিফলে যাবে না।

অনুদান অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটাই শেষ নয়, প্রতিবছর ৮ আগস্ট ১ হাজার বঙ্গমাতা অদম্য উদ্যোক্তাকে অনুদান দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সরকার  স্মার্ট বাংলাদেশ রূপকল্প পূরণে ২০৪১ সালের মধ্যে ৫০ শতাংশ নারী উদ্যোক্তা তৈরি করতে নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ, কো-ওয়ার্কিং স্পেস ও সিড মানি দিয়ে সর্বাত্মক কাজ করবে।

সভায় ২৫০ জন নারী উদ্যোক্তার প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে এককালীন অনুদান দেওয়া হয়। এই উদ্যোগটির সহযোগিতায় কাজ করছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব), উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স (উই), আনন্দমেলা এবং উইমেন অন্ট্রপ্রিনিউরস্ অব বাংলাদেশ (ওয়েব)।

স্টার্টআপদের পাশাপাশি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠান (এসএমই), উদ্যোক্তা, বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের উন্নয়ন, উৎসাহ প্রদান এবং তাদের ব্যবসায়কে ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে এ অনুদান দেওয়া হয়।

Place your advertisement here
Place your advertisement here