• বুধবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
খালেদাকে বিদেশে যেতে আইনি প্রক্রিয়া মানতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ও কর্মসংস্থানে ১৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি মূল্যায়ন ও অগ্রগতিতে প্রথম গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট এনবিআর উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে নিরলস কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগ করবে তুরস্ক

ওয়াই ব্রিজে পঞ্চগড় হবে পর্যটন এলাকা: রেলমন্ত্রী 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ অক্টোবর ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, ‌‘পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাটে করোতোয়া নদীর ওপর ওয়াই আকৃতির সেতু নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। সেতুটি নির্মাণ হলে এই এলাকা পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে উঠবে। সেইসঙ্গে করোতোয়া নদীর এপার ওপারের প্রায় দশ লাখ মানুষের যাতায়াতের নতুন দুয়ার উন্মুক্ত হবে। এক কিলোমিটার দৈর্ঘ্য এই সেতু নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় দুইশ কোটি টাকা।’   

শনিবার বিকালে মাড়েয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত জনসভায় এসব কথা বলেন। 

এসময় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। তাজুল ইসলাম বলেন, ‘দেশে যখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে তখন একটি দল পুরোনো কাসুন্দি ঘাটছে। বিএনপি আন্দোলনে যেতে পারছে না। কারণ, জনগণ তাদের আন্দোলনে নামতে দিচ্ছে না । স্বাধীনতার শত্রুরা এখনো সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটিয়ে দেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করছে।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান সূজার সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন, প্রধান প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ, জনসাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী সাইফুর রহমান, জেলা প্রশাসক জহুরুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, পঞ্চগড় পৌরসভার মেয়র জাকিয়া খাতুন সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। এর আগে মন্ত্রীদ্বয় পরিকল্পিত সেতুর নির্মাণ এলাকা করোতোয়া নদীর আওলিয়া ঘাট পরিদর্শন করেন।

এসময় হাজার হাজার সাধারণ মানুষ সেতু নির্মাণের দাবি তুলে স্লোগান দেন। 

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে মাড়েয়া, বড়শশি, কালিয়াগঞ্জ, ব্যাংহারি ইউনিয়নের লাখ লাখ মানুষ সেতুর অভাবে দুর্ভোগে ছিলেন। মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি নিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস বইছে ওই এলাকায়। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here