• বুধবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৮

  • || ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
খালেদাকে বিদেশে যেতে আইনি প্রক্রিয়া মানতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ও কর্মসংস্থানে ১৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি মূল্যায়ন ও অগ্রগতিতে প্রথম গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট এনবিআর উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে নিরলস কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগ করবে তুরস্ক

মোটা হতে চান? জেনে নিন করণীয় 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

বর্তমানে ওজন কমানো নিয়ে যেখানে অনেকের দুশ্চিন্তার শেষ নেই, সেখানে অনেকেই চেষ্টা করছেন নিজের ওজন বাড়াতে। কারণ অনেকের জন্য ওজন কমানো যেমন জরুরি, তেমনি কারো কারো ক্ষেত্রে ওজন বাড়ানো জরুরি হয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে তারা নানাভাবে চেষ্টা করেন, খাবার খাওয়ার পরিমাণও বাড়িয়ে দেন। তবে ফলাফল তেমন আসে না, যেমন আসা করা হয়। 

ওজন বাড়াতে গিয়ে অনেকে অস্বাস্থ্যকর উপায় বেছে নেন। কেউ ফাস্টফুডের দিকে ঝুঁকে পড়েন, কেউ খাবারের রুটিন মেনে চলেন না। আপনি সচেতন হলেই স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন বাড়ানো সম্ভব। জেনে নিন বিশেষজ্ঞদের কিছু পরামর্শ-

উচ্চ ক্যালোরিযুক্ত খাবার
সাধারণত মানুষ উচ্চ ক্যালোরিযুক্ত খাবার থেকে দূরে থাকেন ওজন বৃদ্ধির ভয়ে। আপনার যদি ওজন বাড়ানোর দরকার পড়ে তবে তো এ ধরনের খাবার খাওয়াই যেতে পারে। কাঙ্ক্ষিত ওজন না পাওয়া পর্যন্ত এ ধরনের খাবার খান নিয়মিত। তবে ওজন বেড়ে যাওয়ার পর এ ধরনের খাবার খাওয়া কমিয়ে আনতে হবে।

শাক-সবজি ও ফ্যাট জাতীয়
ওজন বাড়াতে চান বলে শাক-সবজি খাওয়া বাদ দিলে কিন্তু চলবে না। বরং শাক-সবজি ও ফ্যাট জাতীয় খাবার খেতে হবে নিয়মিত। প্রতিদিন খাবারের তালিকায় পর্যাপ্ত শাক-সবজি রাখুন। চেষ্টা করুন তাজা শাক-সবজি খেতে। মৌসুমী শাক-সবজির ভেতর অনেক উপকারী উপাদান পাওয়া যায়। যেগুলো আমাদের শরীরে সঠিক পুষ্টি পৌঁছে দিয়ে সুস্থ থাকতে সাহায্য করবে।

ভাত খান নিয়মিত
আমাদের প্রধান খাবার হলো ভাত। অনেকে ওজন বেড়ে যাওয়ার ভয়ে ভাত খাওয়া এড়িয়ে চলেন। আপনি যদি নিয়মিত মাড়যুক্ত ভাত খেতে পারেন তবে কিন্তু ওজন বেড়ে যাবে। কারণ ভাতের মাড়ে যথেষ্ট ফ্যাট রয়েছে। আপনি অন্তত একমাস মাড়যুক্ত ভাত খেতে পারেন। এতে কাঙ্ক্ষিত ওজনের অনেকটাই পেয়ে যাবেন।

খাবারের প্রতি আগ্রহ বাড়ান
ওজন কম থাকার অন্যতম কারণ হলো খাবারের প্রতি আগ্রহ না থাকা। এমন অনেকে আছেন, খাবার খেতে যাদের ভালোলাগে না। অনেকের তো খাবারের প্রতি এক ধরনের ভীতিও কাজ করে। এই অভ্যাস থেকে বের হয়ে আসতে হবে। সুস্থ থাকতে চাইলে স্বাস্থ্যকর ও পর্যাপ্ত খাবারের বিকল্প নেই। আপনি যদি ওজন বাড়াতে চান তবে প্রতিদিন পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। এক্ষেত্রে একজন পুষ্টিবিদের পরামর্শ নিয়ে খাবারের তালিকা করলে সবচেয়ে ভালো হয়।

বারবার খান
অল্প করে বারবার খাবার খেতে হবে এমন কোনো কথা নেই। বরং আপনি যদি অল্প করে বারবার খান তাহলে শরীরে মেটাবলিজম বেড়ে যায়। এর ফলে ওজন কমতে থাকে। সেজন্য দিনে ৩-৪ বার পেট ভরে খান। তবে খেতে গিয়ে অস্বাস্থ্যকর খাবার অবশ্যই এড়িয়ে চলবেন। নয়তো ওজন বাড়লেও তা আপনার জন্য উপকার বয়ে আনবে না। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here