• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

Find us in facebook
সর্বশেষ:
পুলিশকে বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে থাকতে হবে: রাষ্ট্রপতি চিকিৎসকদের দায়িত্ব নিয়ে সেবা দিতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোজায় বড় ইফতার পার্টি না করার নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর দিনাজপুরে সোহেল হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন কাউনিয়ায় ভুট্টা গাছের সঙ্গে শত্রুতা

হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ পাঠানোর ১৫ মিনিটের মধ্যে এডিট করা যাবে

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২৩  

Find us in facebook

Find us in facebook

মনে করুন আপনি কাউকে মেসেজ পাঠিয়ে দিলেন। কিন্তু সেটা পাঠানোর পর মনে হল যে, অন্য কিছু লেখার দরকার ছিল। অথবা বানান ভুল হয়ে গেছে। তাতে বড়সড় বিভ্রান্তি বা অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

এ অবস্থায় সেই মেসেজ ডিলিট করে দেওয়া ছাড়া কোনো উপায় থাকে না। কিন্তু মেসেজ ডিলিট করে দিলেও সেটা কেমন যেন খারাপ দেখায়। এই নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের একটি চাপা ক্ষোভ ছিল। সেটা অবশ্য শুনেছে হোয়াটসঅ্যাপের ডেভেলপাররা। অবশেষে বহু প্রতীক্ষিত এক আপডেট আসতে চলেছে সবচেয়ে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপে।

হ্যাঁ। কোনো মেসেজ আপনি পাঠিয়ে ফেললেন। এরপর যদি মনে হয় সেই পাঠানো মেসেজেই কোনো অদল-বদল করার দরকার, সেক্ষেত্রে সেই মেসেজই সরাসরি এডিট করে নিতে পারবেন। মেসেজ এডিট করার এমনই ফিচার যোগ হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপে।

এর আগে হোয়াটসঅ্যাপের বেটা ভার্সানে এই ফিচার নিয়ে বেশ কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা হয়েছিল। তবে তা সম্পূর্ণ টেস্টিং পর্যায়ে ছিল। একাধিক প্রতিবেদনে তার স্ক্রিনশটও দেখা গিয়েছিল। তাতে দেখা যাচ্ছিল, মেনুর মধ্যেই কোনো মেসেজ এডিট করার এক নতুন অপশন যুক্ত হয়েছে। অর্থাৎ, একেবারে সহজেই কপি, পেস্ট, মেসেজ ফরোয়ার্ড বা ডিলিটের মতো করেই আপনি হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো কোনো মেসেজ বদলে, বা এডিট করে নিতে পারবেন।

বেটা ভার্সানের ব্যবহারকারীদের মধ্যে এই ফিচার নিয়ে আগ্রহ ছিল তুঙ্গে। এর ভালো রিভিউ পাওয়ায় অবশেষে ফাইনাল ভার্সানে এই নতুন ফিচার আনতে চলেছে মেটা। শীঘ্রই আপনার ফোনের হোয়াটসঅ্যাপেও পেয়ে যাবেন মেসেজ পাঠানোর পরেও তা এডিট করে বদলে নেওয়ার এই ফিচার।

তবে এটি মাত্র ১৫ মিনিটের জন্যই। তারপরে নয়। আর হ্যাঁ, বানান ভুল বা ভুল মেসেজ বদলই এর মূল উদ্দেশ্য। এমনটাই জানিয়েছে মেটা কর্তৃপক্ষ।

Place your advertisement here
Place your advertisement here