• বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৭ ১৪২৮

  • || ১৩ সফর ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
জলবায়ু ইস্যুতে বিশ্বনেতাদের জোরালো পদক্ষেপ চান প্রধানমন্ত্রী লিঙ্গ সমতা নিশ্চিতে বিশ্বনেতাদের সামনে প্রধানমন্ত্রীর ৩ প্রস্তাব পীরগঞ্জে পর্নোগ্রাফির আলামতসহ ওয়ারেন্টভুক্ত ৮ আসামি গ্রেপ্তার লাশের পকেটে চিরকুট, ছিল মোবাইল নম্বর রংপুরে কিস্তির চাপে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

পদ বাঁচাতে খালেদার শরণাপন্ন ফখরুল 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া করোনাভাইরাসের টিকা নেয়ার পর থেকেই পদ হারানোর আশঙ্কা ও উৎকণ্ঠায় দিনযাপন করছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

জানা গেছে, মির্জা ফখরুলের পরামর্শে করোনার টিকা নেন খালেদা জিয়া। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান পলাতক আসামি তারেক রহমান। এ ঘটনায় মির্জা ফখরুলকে মহাসচিব পদ থেকে বহিষ্কারের হুমকি দেন তারেক রহমান। এরপর থেকেই ভয়ে আছেন মির্জা ফখরুল। পদে থাকতে খালেদা জিয়ার শরণাপন্ন হয়েছেন তিনি।

সূত্র জানায়, ঈদের পরদিন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় যান মির্জা ফখরুল। এ সময় তার সঙ্গে থাকা এক বিএনপি নেতা জানান, খালেদার সঙ্গে দেখা করে ফখরুল তার সাহায্য চান। তবে খালেদা তাকে নিশ্চিত না করলেও এ বিষয়ে তারেক রহমানের সঙ্গে কথা বলবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

জানা গেছে, দেশে করোনার সংক্রমণের শুরু থেকেই সরকারের বিরুদ্ধে নানা গুজব এবং অপপ্রচার করছে বিএনপি। তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপি নেতারা এ অপপ্রচার চালান। করোনার টিকা নিলে মৃত্যু ঘটবে, এমন মিথ্যাচারও করেন দলের নেতারা। এসব অপপ্রচারের নেপথ্যে রয়েছেন তারেক রহমান। রাজপথের আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এবং জনগণের কাছে প্রত্যাখ্যাত হয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সরকার পতনের অপচেষ্টায় তারেক বিএনপি নেতাদের করোনা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর নির্দেশ দেন। এরপর থেকে বিএনপি নেতারা প্রতিদিনই গুজব ছড়াচ্ছিলেন। কিন্তু করোনায় অনেক মানুষের মৃত্যু হলে এবং টিকার কার্যকারিতা দেখে তারেকের নির্দেশ উপেক্ষা করে টিকা নেন মির্জা ফখরুল।

এরপর তিনি খালেদা জিয়াকেও টিকা নেয়ার পরামর্শ দেন। প্রথমে খালেদা নিতে না চাইলেও হাসপাতাল থেকে বাসায় এসে মৃত্যু ভয়ে একপর্যায়ে করোনার টিকা নেন। আর এ খবরেই ক্ষুব্ধ হন তারেক রহমান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক প্রভাবশালী নেতা বলেন, ফখরুল সাহেব ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) কাছে গিয়েছিলেন শুনেছি। তবে ম্যাডাম কিছু করতে পারবেন কিনা জানি না। সব সিদ্ধান্ত তো তারেক সাহেব নেন। আমার মনে হয় টিকা নিয়ে ভালোই করেছেন ম্যাডাম। তিনি বয়স্ক মানুষ, ঝুঁকি এড়াতে টিকা নেয়ার দরকার ছিল। তারেক রহমানের হুমকির কথা আমি শুনেছি। রাজনৈতিক ব্যর্থতার জন্য মির্জা ফখরুলকে অব্যাহতি দিলে কোনো সমস্যা ছিল না, কিন্তু টিকা নেয়ার জন্য যদি অব্যাহতি দেওয়া হয়, তবে সেটি ভালো হবে না।

Place your advertisement here
Place your advertisement here