• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাত ৭টায় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার পথে প্রাণ গেল মা-মেয়ের মানুষের কষ্ট লাঘবে লোডশেডিংয়ের রুটিন করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল ডিভাইস আমরা রপ্তানি করব: প্রধানমন্ত্রী

কাউনিয়ায় পিটিয়ে হত্যার পর দাফনের চেষ্টা 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের কাউনিয়ায় মিঠু মিয়া (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার পর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে দাফনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। তবে শেষ পর্যন্ত এলাকাবাসীর বাধায় সে পরিকল্পনা ভেস্তে গেলে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। নিহত মিঠু মিয়া হারাগাছ পৌর এলাকার দালালহাট মাস্টার পাড়ার বাসিন্দা।

মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মিঠু মিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তিনি মাঝে মধ্যে ভাইসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের গালাগাল করতেন। গত রোববার গালাগালি করতে থাকলে বড় ভাই বাবু মিয়া প্রতিবাদ করেন। এ সময় দুজনের মধ্যে হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে যান বাবু মিয়া।

এ খবর পেয়ে খালাতো ভাই আসাদ ও তুষার ক্ষিপ্ত হয়ে মিঠুকে বেধড়ক মারধর করেন। এক পর্যায়ে মিঠু অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে কার্ডিওলজি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। তবে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে হাসপাতালের ছাড়পত্রে উল্লেখ করা হয়।

পরে স্বজনরা মিঠুর মরদেহ বাড়িতে নিয়ে গিয়ে দাফনের উদ্যোগ নিলে গ্রামবাসী বাধা দেয়। তাদের অভিযোগ, মারধরের কারণে মিঠুর মৃত্যু হয়েছে।

হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে আজ ভোরে বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here