• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাত ৭টায় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার পথে প্রাণ গেল মা-মেয়ের মানুষের কষ্ট লাঘবে লোডশেডিংয়ের রুটিন করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল ডিভাইস আমরা রপ্তানি করব: প্রধানমন্ত্রী

রোদ-বৃষ্টিতে চুলের রুক্ষতা দূর করার উপায়

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

এখন রোদ আবার খানিক বাদে বৃষ্টি—এমন ভ্যাপসা আবহাওয়াতে চুল বেশি ঝরে পড়ে। হারায় স্বাভাবিক কালো রঙ। এ সময়টাতে ঘন কালো চুল পেতে যখন তখন বৃষ্টি ভেজা থেকে বিরত থাকুন। নিয়মিত যত্ন নিন চুলের। চুল অতিরিক্ত তৈলাক্ত হলে মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। প্রাকৃতিক উপাদান এবং ঘরোয়া যত্নে চুল ঘন ও কালো করার উপায়গুলো জেনে নিন। 

চুল পড়া কমাতে বিশেষ করে এমন স্যাঁতসেঁতে আর্দ্র আবহাওয়ায় একদিন অন্তর তেল দেওয়া ঠিক নয়। চুল যদি শুষ্ক প্রকৃতির হয় তাহলে সপ্তাহে একবার তেল ম্যাসাজ করাই যথেষ্ট। স্বাভাবিক কিংবা তৈলাক্ত চুলের ক্ষেত্রে দুই সপ্তাহে একবার চুলে তেল দিন। সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার চুল ধুয়ে নিন। শ্যাম্পু করলে খুব অল্প পরিমাণে শ্যাম্পু নিয়ে চুল এবং স্ক্যাল্প পরিষ্কার করুন। শেষবার চুল ধোয়ার সময় অ্যাপল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন। এতে চুলে ঔজ্জ্বল্য আসবে।

দুই থেকে তিন মাস অন্তর একবার চুল ট্রিম করাতে পারেন। শুধুমাত্র চুলের আগার খানিকটা অংশ কাটুন। এতে দৈর্ঘ্য বিশেষ কমবে না, আগা ফাটা সমস্যা থাকলে কমে যাবে। এ ছাড়া প্রতিদিন রাতে নন-অয়েলি হারবাল হেয়ার টনিক লাগাতে পারেন স্ক্যাল্পে। সারারাত রেখে দিন। নিয়ম করে খাওয়াদাওয়ার পাশপাশি প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা ঘুমও খুব জরুরি। মনে রাখবেন, শরীর সুস্থ থাকলে তবেই ত্বক এবং চুল ভালো থাকবে।

অন্যদিকে, চুল লালচে বা বাদামি হওয়ার কারণ অনকেটা ডায়েটে প্রোাটিনের পর্যাপ্ত অভাব। অতিরিক্ত রোদ থেকেও অনেকের ক্ষেত্রে এমন সমস্যা হতে পারে। সব সময় চেষ্টা করুন পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন খেতে। নিয়মিত শাকসবজি, ডিম, মাছ, মুরগির মাংস, ডাল, টক দই, পনির ইত্যাদি খেতে পারেন। 

রোদে বের হলে চুল স্কার্ফ বা হ্যাট দিয়ে ঢেকে রাখার চেষ্টা করুন, যাতে সরাসরি রোদ না লাগে। এক চা চামচ ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে এক টেবিল চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে গরম পানির ওপর পাত্রটি রেখে হালকা গরম করে নিন। সপ্তাহে অন্তত একবার এই তেলের মিশ্রণ চুলে লাগান। পরদিন সকালে ভালো করে ধুয়ে নিন। 

যদি ইচ্ছা করেন তাহলে এতে কারিপাতা দিয়ে ফুটিয়ে নিন। অথবা পোড়া রসুনের কোয়া তেলে ঘণ্টা খানেক ভিজিয়ে সেই তেল চুলে লাগান। কারিপাতা এবং রসুন দুটাই চুল কালো করে। চুলে শাইন আনতে লেবুর রস বা চায়ের লিকার দিয়ে চুল ধুতে পারেন। একসঙ্গে চালের লিকার এবং পাতিলেবুর রস মিশিয়েও নিতে পারেন। শ্যাম্পু করার পর শেষবার এই মিশ্রণ দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here