• রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
অভ্যন্তরীণ খাত থেকে রাজস্ব আদায়ে আরও উদ্যমী হোন: প্রধানমন্ত্রী জনপ্রিয়তা থাকলে নির্বাচনে আসুন: বিএনপিকে মির্জা আজম সবাইকে আইন অনুযায়ী রাজস্ব দেওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির মতিঝিল-কমলাপুর মেট্রোরেল লাইন নির্মাণ প্রক্রিয়া শুরু ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক জোরদারে সমর্থনের আশ্বাস মার্কিন সিনেটরের

দুইটি উপাদানে ১০ মিনিটে পিরিয়ডের ব্যথা কমান

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

পিরিয়ডের ব্যথা একজন নারীকে নাজেহাল করে ছাড়ে। অথচ এই সময়েও প্রতিদিনকার ধকল সামাল দিতে হয়। ব্যথায় অস্থিরতা বাড়ে। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পিরিয়ডের সময় কোমর, উরু এবং পেটের চারপাশে ব্যথা হয়। কারণ, পিরিয়ডের সময় জরায়ু দ্রুত সংকুচিত হতে থাকে। যার কারণে জরায়ুর আস্তরণে উপস্থিত রক্তনালীগুলো চাপা পড়ে এবং রক্ত ও অক্সিজেনের সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এই অবস্থায়, টিস্যুগুলি এমন রাসায়নিক নির্গত করে যা ব্যথা সৃষ্টি করে।

>> সাধারণত পিরিয়ডের সময় রক্তপাত শুরু হলে তার সঙ্গে ব্যথাও শুরু হয়। কিন্তু কিছু কিছু নারীর ক্ষেত্রে পিরিয়ড শুরুর আগেও হতে পারে। যাকে PMS বলে। এই ব্যথা ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টা স্থায়ী হতে পারে। তবে কোনো কোনো নারীকে এই সময়ের বেশি সময় ধরে এই ব্যথা সহ্য করতে হতে পারে।

>> পিরিয়ড ব্যথা সহ্য করতে না পেরে অনেক নারী ব্যথানাশক ওষুধ গ্রহণ করেন। কিন্তু এই ওষুধগুলো নিয়মিত সেবনের পর তাদের মাসিক চক্র এবং ডিম্বস্ফোটনের ওপর খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। যার কারণে পিরিয়ডের অস্বাভাবিকতা দেখা দেয়।

পুষ্টিবিদরা বলেন, পিরিয়ডের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার করা যেতে পারে। তিনি বলেছিলেন যে ঘরে উপস্থিত দুটি জিনিস সেবন করলে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে তার ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এই গোপন রেসিপিটি তিনি তাঁর মায়ের কাছ থেকে শিখেছিলেন।

দ্রুত ব্যথা কমানোর উপায়
পিরিয়ডের ব্যথা কমানোর জন্য ১ চা চামচ মধু ও ১ চা চামচ আদার রস খান। ভালো করে মিশিয়ে তারপর সেবন করুন। এটি কয়েক মিনিটের মধ্যে ব্যথা বন্ধ করবে। একই সময়ে, আপনি এই ঘরোয়া প্রতিকারটি পিরিয়ডের সময় দিনে দু'বার নিতে পারেন ব্যথা, খিঁচুনি এবং ফোলাভাব প্রতিরোধ করতে।

কিছু টিপস অবলম্বন করলে পিরিয়ডের ব্যথা থেকে চিরতরে মুক্তি পাওয়া যায়। আপনি কিছু যোগব্যায়াম এবং ব্যায়াম করে ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তবে ব্যথা তীব্র হলে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কারণ, এটি একটি লুকানো স্বাস্থ্য সমস্যাও হতে পারে।

সূত্র: এই সময়

Place your advertisement here
Place your advertisement here