• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাত ৭টায় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার পথে প্রাণ গেল মা-মেয়ের মানুষের কষ্ট লাঘবে লোডশেডিংয়ের রুটিন করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল ডিভাইস আমরা রপ্তানি করব: প্রধানমন্ত্রী

আগামী সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে সিসিটিভি থাকতে পারে

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

 

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ও কক্ষে সিসিটিভি স্থাপনের চিন্তা করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ ছাড়া আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা সাপেক্ষে সংসদের ভোটে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার বাড়াতে চায় ইসি।

সম্প্রতি বিশিষ্টজন ও গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপের প্রেক্ষাপটে ইসি এই মত প্রকাশ করেছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন ইসির যুগ্ম সচিব (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান।

এ ছাড়া নির্বাচনে কারচুপির সুযোগ রোধ করে অবাধ ও নিরপেক্ষ ফল নিশ্চিত করতে সম্ভাব্য সকল ব্যবস্থা নেবে বলে মত জানিয়েছে ইসি। এমনকি আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠেয় কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রতিটি ভোটকেন্দ্র ও কক্ষে সিসিটিভি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

সংলাপের প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনের মতামতের মধ্যে উল্লেখযোগ্য- নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক, অবাধ ও নিরপেক্ষ করতে ইসি সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাবে। সকল রাজনৈতিক দল বিশেষত প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোকে অচিরেই সংলাপে ডাকা হবে। ভোটকেন্দ্র ও ভোটাধিকার প্রয়োগে অর্থশক্তি ও পেশিশক্তির প্রভাব প্রতিরোধ করতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অর্থশক্তি ও পেশিশক্তির প্রভাব প্রতিরোধে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দল ও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদেরও সজাগ দৃষ্টি রেখে প্রত্যাশিত ভূমিকা রাখতে হবে। নির্বাচনে কারচুপির সুযোগ রোধ করে অবাধ ও নিরপেক্ষ ফল নিশ্চিত করতে ইসি সব ব্যবস্থা নেবে। কেন্দ্রে ভোট কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে অনুমোদিত সাংবাদিকদের এবং দেশীয় ও আন্তর্জাতিক নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের অবাধ সুযোগ নিশ্চিত করতে কমিশন আন্তরিকভাবে চেষ্টা করবে।

স্বচ্ছতার জন্য ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা প্রতিস্থাপন করে কেন্দ্রের অভ্যন্তরভাগের দৃশ্য বাইরে থেকে পর্যবেক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি করার বিষয়ে কমিশন সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করবে এবং আরও পর্যালোচনা করে কমিশন আগামী সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার বা ব্যবহারের পরিধি ও বিস্তৃতি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইসির তথ্য অনুযায়ী স্টেকহোল্ডারদের উপস্থাপিত মতামত, পরামর্শ ও প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক করতে সব দল, বিশেষত প্রধান রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে; নির্বাচন অবাধ হতে হবে; নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে; নির্বাচনে কারচুপির সুযোগ রোধ করে শুদ্ধ ও নিরপেক্ষ ফল নিশ্চিত করতে হবে; ভোটকেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগে অর্থশক্তি ও পেশিশক্তির ব্যবহার ও প্রভাব প্রতিরোধ করতে হবে; ভোটের সময় ভোটকেন্দ্রে অনুমোদিত সাংবাদিকদের অবাধ প্রবেশাধিকার দিতে হবে; ভোট গ্রহণ কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের অবাধ সুযোগ দিতে হবে।
কে/

Place your advertisement here
Place your advertisement here