• শুক্রবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৪ ১৪২৯

  • || ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
শেখ হাসিনার আজ জন্মদিন, জীবন যেন এক ফিনিক্স পাখির গল্প আজ থেকে করোনা টিকার বিশেষ ক্যাম্পেইন রংপুরে বাসের ধাক্কায় নিথর হলেন অটোযাত্রী ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রপাত, প্রাণ গেল কৃষকের পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি, ৩ দিন বাড়ল তদন্ত প্রতিবেদন জমার মেয়াদ

তারেক রহমানের বিচার দ্রুত কার্যকর চায় ছাত্রলীগ

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৫ আগস্ট ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

২০০৪ সালে ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা মামলায় যাবজ্জীবন শাস্তি পাওয়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে দ্রুত ফিরিয়ে এনে বিচার কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আয়োজনে এক ছাত্র সমাবেশে এ দাবি জানানো হয়। সমাবেশে সঞ্চালনা করেন ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন এবং সভাপতিত্ব করেন ঢাবি ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ২০০৪ সালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে খুনি তারেক জিয়া মাস্টারমাইন্ডে ঘৃণ্য অপচেষ্টায় এই গ্রেনেড হামলা হয়েছে।

সে মামলার রায় হয়েছে। খুনি তারেক জিয়াকে দ্রুত সময়ে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে দাবি জানাই তারেক জিয়াকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে দ্রুত রায় কার্যকরের সর্বোচ্চ ব্যবস্থা যেন তারা করে।

সভাপতির বক্তব্যে সনজিত চন্দ্র দাস বিএনপি-জামায়াত জোটকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ২১ আগস্টের হামলায় আপনারা জড়িত না হলে বিবৃতি দিতে পারতেন। এটি দুঃখজনক, কলঙ্কতম অধ্যায়। আপনারা উল্টো হামলাকারীদের পুরস্কৃত করেছেন। পালিয়ে যাওয়ার জন্য সহায়তা করেছেন। সেদিন হামলার শিকার নেতাকর্মীদের সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে দেননি। ধিক্কার জানাই এ সকল খুনী সংগঠনের।

এ সময় সাদ্দাম হোসেন বলেন, বিএনপি জামায়াত সরকারের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায়, রাষ্ট্রীয় মেশিনারিজ ব্যবহার করে, ক্যাবিনেটের মন্ত্রীদের নিয়ে, জঙ্গি সংগঠনকে সম্পৃক্ত করে যেভাবে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছে, এর ফলে বিএনপি তার রাজনীতি করার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে। খুনিদের সবসময় দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে। আর যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের নাম ব্যবহার করে অশুভ প্রক্রিয়াশীল গোষ্ঠীকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করছে তাদেরকে আমরা সতর্ক থাকার আহ্বান জানাই।

Place your advertisement here
Place your advertisement here