• শুক্রবার   ১৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৩ ১৪২৯

  • || ২০ মুহররম ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
আমাদের বিচার চাইতেও বাধা দেওয়া হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুজ প্রেমের কারণে জীবন দিতে হলো সানজিদাকে: পুলিশ জামানতবিহীন গুচ্ছভিত্তিক ঋণ দেওয়ার নির্দেশ একদিনে ৮ কোটি ডলার বিক্রি করল বাংলাদেশ ব্যাংক কমতে পারে জ্বালানি তেলের দাম

কোরবানির গরু কেনা নিয়ে বিএনপি নেতাদের প্রতিযোগিতা

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ জুলাই ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

মুখে মুখে দেশের মানুষের জন্য আদর উগরে দেয় বিএনপি। কিন্তু দেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও সংকটে জনগণের পাশে থাকতে দেখা যায় না দলটির নেতাকর্মীদের। এমনকি চলমান বন্যা পরিস্থিতিতেও ক্ষতিগ্রস্তদের কোনো প্রকার সহযোগিতা করতে দেখা যায়নি। তবে প্রতি বছরের মতো এবারও লাখ লাখ টাকা খরচ করে একাধিক কোরবানির গরু কেনার প্রতিযোগিতায় নেমেছেন বিএনপির সিনিয়র নেতারা। 

জানা গেছে, কোরবানির পশু কেনার এ প্রতিযোগিতায় এগিয়ে আছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু। তিনি ৬টি গরু কিনবেন। যার মধ্যে ৪টি ব্রাহমা ও দু’টি শাহীওয়াল জাতের। এছাড়া তিনটি রাজস্থানি উট কেনারও কথা রয়েছে তার।

মির্জা আব্বাস পাঁচটি গরু কিনবেন বলে জানা গেছে। যার মধ্যে দুটি ফ্রিজিয়ান, দুটি ব্রাহমা এবং অপরটি শাহীওয়াল। মির্জা আব্বাসের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল। তিনি সর্বমোট ৪টি গরু কিনবেন। যার মধ্যে দুটি শাহীওয়াল ও অপর দুটি সিন্ধি গরু।

এছাড়া মির্জা ফখরুল, রুহুল কবির রিজভী, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল এবং শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ৪টি করে ব্রাহমা জাতের গরু কিনবেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, নতুন করে শুরু হওয়া করোনা এবং বিগত এক মাস ধরে চলা বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে মানুষ যখন বেঁচে থাকার লড়াই করছে, তখন বিএনপি নেতাদের কোরবানির গরু কেনার প্রতিযোগিতা নিঃসন্দেহে বেমানান। কোরবানির উদ্দেশ্য হলো ত্যাগের মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন। আল্লাহর প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে নিজের সবচেয়ে প্রিয় বস্তু মনে করে প্রতীকী অর্থে পশু কোরবানি করা। তবে অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে বিএনপির কাছে কোরবানির অর্থ লোক দেখানো।

মূলত বাজারের সবচেয়ে বড় ও বেশি দাম গরু কিনে কোরবানি দেওয়ার জন্য সামর্থ্য জাহিরে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন বিএনপি নেতারা। যা একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলের নেতাদের কাছে কোনোভাবেই কাম্য নয়।

Place your advertisement here
Place your advertisement here