• শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

Find us in facebook

পীরগাছায় বাল্যবিয়ের শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩ জুলাই ২০২৪  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের পীরগাছা উপজেলায় বাল্যবিয়ের শিকার সপ্তম  শ্রেণির এক শিক্ষার্থী ঘরের তীরের সাথে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (০৩ জুলাই) বিকেলে।। মৃতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার ও থানা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ইটাকুমারী ইউনিয়নের পূর্ব হাসনা (আটানী) গ্রামের নাজমুল হকের মেয়ে নাজমা আক্তার (১৪) স্থানীয় কালীগঞ্জ দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির নিয়মিত শিক্ষার্থী। ৬ মাস আগে কিশোরী নাজমা আক্তারকে বিয়ে দেয়া হয় পার্শ্ববর্তী কামদেব গ্রামের মাহবুবুর রহমানের ছেলে রাসেল মিয়ার (২৫) সাথে। বিয়ের পর নাজমা স্বামীর বাড়িতে একমাস যাতায়াত করলেও পরবর্তীতে পিত্রালয়ে চলে আসে এবং সেখানে থেকেই পড়ালেখা করতে থাকে। নাজমার স্বামী রাসেল মিয়া ঢাকায় গিয়ে একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি নেয়। এই পরিস্থিতিতে বুধবার সকালে নাজমা আক্তার তার পিত্রালয় থেকে সপ্তম শ্রেণির ষান্মাসিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য বিদ্যালয়ে যায়। পরীক্ষা শেষে সে বাড়িতে ফিরে আসে। এরপর বিকেলে পাশেই তার দাদার ফাঁকা বাড়িতে গিয়ে ঘরের তীরের সাথে পড়নের ওড়না গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। 

পীরগাছা থানার ওসি সুশান্ত কুমার সরকার বলেন, কিশোরী নাজমা আক্তারের আত্মহত্যার সুনির্দিষ্ট কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here