• শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

Find us in facebook

ফেইস মাস্কে সুন্দর ত্বক

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২০ জুন ২০২৪  

Find us in facebook

Find us in facebook

শীতকাল অনেকেরই পছন্দের। কিন্তু শীতকাল এলেই তো ত্বক আর্দ্রতার অভাবে হয়ে ওঠে রুক্ষ, শুষ্ক ও প্রাণহীন।  ত্বকের বাড়তি যত্নে ফেসিয়াল মাস্ক অত্যন্ত উপকারী। শুধু আপনাকে আপনার ত্বক উপযোগী মাস্কটি বেছে নিতে হবে। তাৎক্ষণিকভাবে টানটান আর পরিষ্কার ত্বক পেতে মাস্কের বিকল্প নেই।

* টমেটো ও লেবুর মাস্ক : টমেটো ভালো করে ধুয়ে নিয়ে ভালোভাবে থেঁতলে নিন, এর সঙ্গে দুই টেবিল-চামচ লেবুর রস ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার মিশ্রণটি গলায় এবং মুখে মেখে ২০ মিনিট রেখে শুকিয়ে গেলে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্ক রোদে পোড়া ভাব দূর করে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে।

* টমেটো ও ময়দার মাস্ক : দুই চামচ ময়দা এবং দুই থেকে তিন চামচ টমেটোর রস নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। খেয়াল রাখতে হবে মিশ্রণটি যেন ভালো করে মিশে যায়। এরপর মুখে ও গলায় লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলুন। ভালো উপকার পাবেন।
* মধু ও লেবুর মাস্ক : এক টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে এক টেবিল চামচ লেবুর রস দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এরপর  আপনার ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করে মিশ্রণটি পুরো মুখে ও গলায় ভালোভাবে মাখিয়ে নিন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে এলে পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের লাবণ্যতা ফিরিয়ে আনতে এই মাস্ক অত্যন্ত উপকারী।

* কাঠবাদামের মাস্ক : চার-পাঁচটি কাঠবাদাম নিয়ে সারা রাত দুধে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে কাঠ বাদামের খোসা ছাড়িয়ে দুধ এবং বাদামের পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার রাতে ঘুমানোর আগে ওই পেস্ট মুখে লাগিয়ে সকালে উঠে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্ক ভালো নাইট ক্রিম ছাড়াও শীতে ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ার সমস্যা থেকেও রক্ষা করে।

* হলুদের মাস্ক : ত্বকের যত্নে হলুদ প্রাকৃতিক ভেষজ উপাদান। তিন টেবিল চামচ লেবুর রসের সঙ্গে এক টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি ত্বকে মেখে ২০ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা ত্বকের যে কোনো সমস্যা দূর করে উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে।

* কলা ও দইয়ের প্যাক : পাকা কলা চটকে সঙ্গে দুই টেবিল চামচ টক দই ও এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। মিশ্রণটি যেন ভালোভাবে মিশে যায় সেদিকে নজর রাখবেন। এবার মুখ এবং গলায় পুরু করে মিশ্রণটি দিয়ে ৩০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। কোমল ত্বকের জন্য সপ্তাহে দুবার এই মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।

* গুঁড়া দুধের মাস্ক : এক চামচ গুঁড়া দুধের সঙ্গে এক চামচ মধু ও এক চামচ লেবুর রস দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এরপর মুখ ও গলা ভালোভাবে পরিষ্কার করে মিশ্রণটি লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে ত্বক হয়ে উঠবে কোমল।

* ওটমিল মাস্ক : চার টেবিল চামচ ওটমিলের সঙ্গে চারটি কাঠবাদাম গুঁড়া করে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার এতে সামান্য দুধ ও এক টেবিল চামচ মধু দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার মুখে মিশ্রণটি দিয়ে পাঁচ মিনিট রেখে আলতো করে মালিশ করুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটা ত্বকের ময়লা, মৃত কোষ তুলে এমন কি ত্বকের বলিরেখাও দূর করবে।

* শসা ও লেবুর মাস্ক : এক চামচ শসার রস ও এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে এই মাস্ক তৈরি করতে হবে। মাস্কটি মুখে ও গলায় লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে এলে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্ক ত্বকের ময়লা, মৃত কোষ তুলতে সাহায্য করবে।

* টক দই ও মাঠার মাস্ক : দুই চামচ টক দই ও দুই চামচ মাঠা একটি বাটিতে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এরপর পুরো শরীরে লাগান। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে এলে কুসুম গরম পানি দিয়ে গোসল করে নিন। এই মাস্ক ত্বকের মরা কোষ দূর করে ত্বকের শুষ্কতা ফিরিয়ে আনে এবং ত্বকের মলিনতা দূর করতে সাহায্য করে।

* অলিভ অয়েল ও ডিমের কুসুমের মাস্ক : দুটি ডিমের কুসুমের সঙ্গে দুই ফোঁটা অলিভ অয়েল নিয়ে ভালোভাবে ফেটে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি মুখে মেখে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। শীতের এই রুক্ষ আবহাওয়ায় উজ্জ্বল ত্বক পেতে এই মাস্ক সপ্তাহে দুই দিন ব্যবহার করুন।

* সূর্যমুখী তেল : শীতকালে ত্বকের যত্নে একটি কার্যকরী ঘরোয়া উপায় হচ্ছে সূর্যমুখী তেল। কারণ এই তেলটি প্রচুর ভিটামিন ও ফ্যাটি এসিডসমৃদ্ধ। তাই ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে এমন কি ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে এই তেল অনেক উপকারী।

শীতকাল যেহেতু চলেই এসেছে, তাই আজ থেকেই শুরু করে দিন ত্বকের যত্ন।  আর হোক ঘরোয়া উপাদানের মাধ্যমে। শীতকাল জুড়ে থাকুন তারুণ্য উজ্জ্বল ও লাবণ্যময়।  

লেখা: নূরজাহান জেবিন

Place your advertisement here
Place your advertisement here