• বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৭ ১৪২৮

  • || ১৩ সফর ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
জলবায়ু ইস্যুতে বিশ্বনেতাদের জোরালো পদক্ষেপ চান প্রধানমন্ত্রী লিঙ্গ সমতা নিশ্চিতে বিশ্বনেতাদের সামনে প্রধানমন্ত্রীর ৩ প্রস্তাব পীরগঞ্জে পর্নোগ্রাফির আলামতসহ ওয়ারেন্টভুক্ত ৮ আসামি গ্রেপ্তার লাশের পকেটে চিরকুট, ছিল মোবাইল নম্বর রংপুরে কিস্তির চাপে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

পীরগঞ্জে ছেলেদের ভয়ে পালিয়ে বাড়ি ছাড়লেন শিক্ষক 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৯ আগস্ট ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

দ্বিতীয় স্ত্রীর নামে জমি লিখে দেওয়ায় প্রথম স্ত্রীর ছেলেদের ভয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শফিউল আলম ও তার স্ত্রী রিনা বেগম। এ ঘটনায় ছেলেদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগও করেছেন তিনি। গত শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার মদনখালী ইউনিয়নের কাদিরাবাদ গ্রামে।

শফিউল আলম জানান, প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর ছেলে-মেয়েদের সম্মতি নিয়ে ওই উপজেলার অনন্তরামপুরের আজিজুর রহমান মণ্ডলের বিধবা মেয়ে রিনা বেগমকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর রিনা বেগমের গর্ভে সন্তান এলে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে শফিউলের প্রথম স্ত্রীর দুই ছেলে সরওয়ার আলম শামীম ও রবিউল আলম স্বপন। এক পর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে রিনার গর্ভের সন্তান নষ্ট করে ফেলেন তিনি। স্ত্রীর ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তাকে ৬ শতাংশ জমি লিখে দেন।

তিনি আরো জানান, রিনা বেগমকে জমি লিখে দেওয়ায় ছেলে শামীম ও স্বপন ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখে। এক পর্যায়ে দুইজনকে নির্যাতন ও হত্যার চেষ্টা চালায়। ওই রাতে শফিউল আলম ও রিনা বেগম কৌশলে পালিয়ে পার্শ্ববর্তী খালাসপীর গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নেন। এ খবর পেয়ে শামীম ও স্বপন মোবাইলে কল দিয়ে আশ্রয়দাতা আত্মীয়সহ তাদের দুইজনকে প্রাণনাশের হুুমকি দিতে থাকে। বাধ্য হয়ে শনিবার দুই ছেলে, ছেলের বৌসহ সাতজনের বিরুদ্ধে পীরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন শফিউল আলম।

পীরগঞ্জ থানার এসআই জামিউল ইসলাম জানান, বিষয়টি দ্রুত তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here