• রোববার   ১৬ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৩ ১৪২৮

  • || ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

Find us in facebook
সর্বশেষ:
বাংলাদেশকে আরো ৯৬ লাখ ফাইজার টিকা দিলো যুক্তরাষ্ট্র পীরগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ তিন জনের মৃত্যু পরিবেশ উন্নয়নে বৃক্ষরোপণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে: পরিবেশমন্ত্রী নাসিক নির্বাচন জাতীয় পর্যায়ে উদাহরণ সৃষ্টি করবে: কৃষিমন্ত্রী ভূমি ব্যবস্থাপনাকে এসওপি’র আওতায় আনা হচ্ছে: ভূমি সচিব

ইঁদুর নিধন করে চার বছরে ১১৭ কোটি টাকার অতিরিক্ত ফসল উৎপাদন

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরে গত চার বছরে ইঁদুর নিধন অভিযানের মাধ্যমে ১ লাখ ২১ হাজার ৩৯৮ মেট্রিক টন অতিরিক্ত ফসল উৎপাদন হয়েছে। এর মূল্য প্রায় ১১৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। মঙ্গলবার বিকেলে রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অধিদফতরের কর্মকর্তারা বলছেন, ২০১৮ থেকে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৫৩ লাখ ৩৩ হাজার ৫৪২টি ইঁদুর নিধন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে উল্লিখিত পরিমাণ ফসল রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে।

কৃষকরা জানিয়েছেন, শুধু আমন মৌসুমে ইঁদুর নিধন অভিযানের ব্যাপক তৎপরতা থাকে। তবে সারা বছর কার্যকর সমন্বিত ইঁদুর নিধন অভিযান পরিচালনা করলে ফসলের উৎপাদন আরো বাড়বে।

পীরগাছা উপজেলার পারুল ইউনিয়নের বিরাহীম গ্রামের কৃষক সফর উদ্দিন খান জানান, চলতি আমন মৌসুমে ইঁদুরের হাত থেকে ফসল বাঁচানোর জন্য বাঁশের চোঙ্গার ফাঁদ পেতে ২৫০টি ইঁদুর নিধন করেছেন। সারা বছর ইঁদুর নিধন করতে পারলে ফসলের উৎপাদন আরো বাড়ানো সম্ভব।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উদ্ভিদ ও সংরক্ষণ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ইঁদুর নিধনের মাধ্যমে ২০১৭-১৮ থেকে ২০২০-২১ সাল পর্যন্ত ১ লাখ ২১ হাজার ৩৯৮ মেট্রিক টন ধান, গম, আলু এবং সবজির উৎপাদন বেড়েছে। ২০১৭-১৮ মৌসুমে ২৭ কোটি ৪২ লাখ টাকার ফসল ইঁদুরের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। ২০১৮-১৯ সালে ২৯ কোটি ৫০ লাখ টাকার, ২০১৯-২০ সালে ২৭ কোটি ৪৩ লাখ টাকার। ২০২০-২১ সালে রক্ষা পেয়েছে ৩৩ কোটি টাকার ফসল।

বিশেষজ্ঞ কৃষিবিদ খোন্দকার মেসবাহুল ইসলাম জানান, পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে চাষের জমিতে ইঁদুরের উপদ্রব বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঝোপঝাড় কমে যাওয়ায় জমির আইলে ইঁদুর বাসা বাঁধে। বর্তমানে অধিকাংশ কৃষক জমির আইল কেটে এত চিকন করেছে যে ইঁদুরগুলো জমির চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি আরো বলেন, প্রতিবছর একটি সময়ে ইঁদুর নিধনের জন্য কৃষি বিভাগ থেকে কর্মসূচি গ্রহণের উদ্দেশ্য হচ্ছে কৃষকদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করা। তবে ইঁদুর নিধনের সুফল পেতে হলে এ কার্যক্রম সারাবছর অব্যাহত রাখতে হবে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here