• মঙ্গলবার   ২৯ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৯

  • || ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
দশ টাকায় টিকিট কেটে চক্ষু পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষ দুর্নীতিবাজদের ফের ক্ষমতায় দেখতে চায় না: হানিফ সরকারি কর্মচারীদের পাঁচ বছর পরপর সম্পদের বিবরণী জমা দিতে হবে না আগামী অক্টোবরে চালু হবে থার্ড টার্মিনাল ব্যাংক খাতের পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

‘কম্পিউটার ভিশন সিনড্রোম’ কী? এই রোগ থেকে বাঁচার উপায়

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২২  

Find us in facebook

Find us in facebook

শুধু কম্পিউটার ব্যবহারের জন্যই নয়, মোবাইল, ট্যাবলেট বা আই প্যাড ব্যবহার করেও ‘কম্পিউটার ভিশন সিনড্রোম’-এ ভুগতে পারেন। এক দিকে ঘাড় কাত করে বা সোজা করে রেখে কাজ করার ফলে ঘাড়ের পেশিতে রক্ত চলাচল কমে শক্ত হয়ে যায়। তাই ঘাড়ে-মাথায় ব্যথা করে। তবে শুধু ঘাড় মাথা আর চোখেই সমস্যা শেষ কথা নয়, কাঁধে আর হাতেও ব্যথা করে। 

আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অকুপেশনাল সেফটি অ্যান্ড হেলথের সমীক্ষায় জানা গেছে, যে বা যারা দিনে গড়ে দুই থেকে তিন ঘণ্টা কম্পিউটারে কাজ করেন, তাদের মধ্যে প্রায় ৯০% এই সমস্যায় ভুগছেন। এদের মধ্যে আবার বেশিরভাগের বয়স ১৮ থেকে ২৫ বছর।

>>কম্পিউটার ভিশন সিনড্রোমের কয়েকটি কারণ আছে, যা একটু চেষ্টা করলেই এড়িয়ে চলা যায়। স্বাভাবিক নিয়মে আমাদের ঘন ঘন চোখের পলক পড়ে। চোখের পাতার তলায় থাকে সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম গ্রন্থি। পলক পড়লে এর থেকে বিশেষ ধরনের পানি বের হয়। এটি চোখের মনিকে ভিজিয়ে রাখে।

>>চোখ ভাল রাখতে বার বার চোখের পলক ফেলতে হবে। কিন্তু কম্পিউটার বা মোবাইলে কাজ বা চ্যাট করার সময় বেশিরভাগ মানুষই অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে। চোখের পলক পড়ে না। তাই লুব্রিক্যান্ট বেরতে পারে না। এর ফলে চোখ যায় শুকিয়ে।

>>চোখ শুকিয়ে গেলেই যতো সমস্যার শুরু। চোখ লাল হয়ে পানি পড়ে, ঝাপসা দেখায়, কখনো কখনো ডাবল ভিশন হয়, তার সঙ্গে ঘাড়ে মাথায় আর পিঠে ব্যথা করতে পারে। কাঁধে আর কব্জিতেও ব্যথা করে। কম্পিউটারের স্ক্রিন বেশি উজ্জ্বল হলে বা কম আলোয় কাজ করলে অথবা খুব কাছে বা অনেকটা দূরে স্ক্রিন থাকলে সমস্যা বেশি হয়। 

>> ২০ মিনিট কম্পিউটারে কাজ করার পর ২০ ফুট দূরে তাকাতে হবে ২০ সেকেন্ডের জন্যে।
>> খুব ভাল হয় উঠে দাঁড়িয়ে দু-তিন মিনিট জানলার পাশ থেকে ঘুরে এলে। সবুজের দিকে তাকালে চোখের আরাম হয়।
>>কিছুক্ষণ কাজ করার পর উঠে গিয়ে চোখে জল দিয়ে এলেও ভাল হয়। 
>>প্রয়োজন হলে আইটোন বা রিফ্রেশ জাতীয় ড্রপ ব্যবহার করতে হবে।
>> বিশেষ করে যাঁদের চোখে অল্পস্বল্প পাওয়ার আছে তাদের চশমা ছাড়া কাজ করলে সমস্যা বেড়ে যায়। কম্পিউটার যদি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্রের কাছাকাছি থাকে এর ঠান্ডা বাতাসে চোখ আরো শুকিয়ে যায়। এ ছাড়া নিয়ম করে ঘাড় ও চোখের ব্যায়াম করা দরকার।

Place your advertisement here
Place your advertisement here