• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

Find us in facebook
সর্বশেষ:
পুলিশকে বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে থাকতে হবে: রাষ্ট্রপতি চিকিৎসকদের দায়িত্ব নিয়ে সেবা দিতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোজায় বড় ইফতার পার্টি না করার নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর দিনাজপুরে সোহেল হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন কাউনিয়ায় ভুট্টা গাছের সঙ্গে শত্রুতা

পরীক্ষামূলক চলল বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২৩  

Find us in facebook

Find us in facebook

সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে চলল প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রতিশ্রুতির বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেলে লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশন থেকে পরীক্ষামূলকভাবে গাইবান্ধার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় আন্তঃনগর বুড়িমারী এক্সপ্রেস।

এর আগে গত ১৯ নভেম্বর বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনের জন্য তিনটি কোচ লালমনিরহাট স্টেশনে পৌঁছায়। ট্রেনটি চালু হলে আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে লালমনিরহাট।

স্থানীয়রা জানান, ভারতীয় সীমান্ত ঘেঁষা জেলা লালমনিরহাটের সঙ্গে ঢাকার সরাসরি যোগাযোগে তেমন কোনো আন্তঃনগর ট্রেন ছিল না। বিগত সরকারের আমলে লালমনি এক্সপ্রেস নামে একটি আন্তঃনগর ট্রেন পায় জেলাবাসী। যা একটি মাত্র রেক (ইঞ্জিন) দিয়ে সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে লালমনিরহাট স্টেশন ছেড়ে মধ্যরাতে ঢাকায় পৌঁছে পুনরায় একই রেকে ফিরে আসে। ফলে রাত্রিকালীন আন্তঃনগর ট্রেন সুবিধা বঞ্চিতই ছিল লালমনিরহাট। দীর্ঘ প্রায় ১০০ কিলোমিটার লম্বা এ জেলার এক কর্ণারে জেলা সদর। ফলে শহরের লোকজন লালমনি এক্সপ্রেসের সুবিধা পেলেও বাকি ৪টি উপজেলা ও বুড়িমারী স্থলবন্দর তথা ভারতগামী পাসপোর্টধারী যাত্রীরা বঞ্চিত হয়ে আসছিল। তাছাড়া দিনে আন্তঃনগর থাকলেও ছিল না রাত্রিকালীন কোনো আন্তঃনগর ট্রেন।

এ কারণে জেলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল সীমান্তবর্তী উপজেলা পাটগ্রামের বুড়িমারী স্টেশন থেকে একটি আন্তঃনগর ট্রেন। এতে ভারতগামী পাসপোর্টধারী যাত্রী এবং বুড়িমারী স্থলবন্দরের ব্যবসা বাণিজ্যের পথ সুগম হবে। জেলাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১১ সালের ১৯ অক্টোবর লালমনিরহাট সফরে এসে জনসভায় ভাষণে বুড়িমারী থেকে সরাসরি ঢাকার যোগাযোগ স্থাপনে একটি আন্তঃনগর ট্রেন চালু করার প্রতিশ্রুতি দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অবশেষে সেই স্বপ্ন পূরণে গত ১৯ নভেম্বর সর্বপ্রথম এ ট্রেনের তিনটি কোচ লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছে। একে একে সব কোচ ও ইঞ্জিন পৌঁছালে বুধবার বিকেলে পরীক্ষামূলকভাবে চলে বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন। লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করে গাইবান্ধার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় ট্রেনটি। সেখান থেকে পুনরায় ফেরে এই ট্রেন।

লালমনিরহাট রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করতে সব প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। এরই মধ্যে সব কোচ ও ইঞ্জিন পৌঁছায় পরীক্ষামূলকভাবে চলাচল করেছে। ইন্দোনেশিয়ান একটি মাত্র ইঞ্জিনে চলবে এই ট্রেন। ট্রেনটি আপাতত লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করবে। বুড়িমারী স্থলবন্দর তথা বাকি ৪ উপজেলার যাত্রীদের জন্য আপাতত শাটল ট্রেন যুক্ত থাকবে। পরবর্তীতে ডাবল ইঞ্জিন হলে এটি বুড়িমারী স্টেশন পর্যন্ত বর্ধিত করা হবে। ট্রেনটি লালমনিরহাট স্টেশন থেকে রাত ৯টা ১০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। তবে কবে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করবে তা নিশ্চিত না হলেও উদ্বোধন করতে রেলভবনে প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা গেছে।

লালমনিরহাট রেলওয়ের সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা-১ জাহাঙ্গীর আলম জানান, প্রয়োজনীয় কোচ এবং ইঞ্জিন পৌঁছায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন পরীক্ষামূলকভাবে চলাচল করেছে। উদ্বোধনী দিনক্ষণ চূড়ান্ত না হলেও খুব দ্রুতই ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here