• শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৭ ১৪৩১

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

Find us in facebook
সর্বশেষ:
বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার অন্যতম নকশাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাস, আজ ৭৮ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন। বন্যায় দুবাই এবং ওমানে বাংলাদেশীসহ ২১ জনের মৃত্যু। আন্তর্জাতিক বাজারে আবারও বাড়ল জ্বালানি তেল ও স্বর্ণের দাম। ইসরায়েলের হামলার পর প্রধান দুটি বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল শুরু। ইসরায়েল পাল্টা হামলা চালিয়েছে ইরানে।

তারাগঞ্জে ইউএনও হস্তক্ষেপে স্কুল ছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ মার্চ ২০২৪  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের তারাগঞ্জে নবম শ্রেনীতে পড়–য়া এক স্কুলছাত্রীর (১৫) বাল্যবিবাহ ইউএনও হস্তক্ষেপে বন্ধ করা হয়েছে। গত শুক্রবার (১ মার্চ) রাত ১১টায় উপজেলার সয়ার ইউনিয়নের বৈদ্যনাথপুর পোষ্ট অফিসপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে এ বিয়ে বন্ধ করেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকতার্ (ইউএনও) মোঃ রুবেল রানা। পাশাপাশি বাল্য বিয়ের আয়োজন করায় বর ও কনের বাবাকে ১০ হাজার টাকা করে ২০ হাজার টাকা অর্তদন্ড করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানাগেছে, নবম শ্রেনীতে পড়–য়া ১৫ বছর বয়সি ওই স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে একই ইউনিয়নের ঘোনপাড়া এলাকার এক তরুনের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। বর-কনের পরিবারের সম্মতিতে শুক্রবার রাত সাড়ে ১০ টায় বিবাহ সম্পন্ন করার দিন ধার্য করা হয়। সে অনুয়ায়ী কনে পক্ষ বিয়ের আয়োজন করেন। বিয়ে বলে কথা কনের বাড়িভর্তি আত্নীয়—স্বজন। রাস্তায় টাঙ্গানো হয়েছিলো বর ও বরযাত্রীকে স্বাগত জানানোর জন্য ঝলমলে গেট। উচ্চ সুরে বিয়ের বাড়িতে বেজে চলছে সাউন্ড সিষ্টামের গান—বাজনা। বাড়ির ভিতরে চলছে রান্নাবান্না। ওইদিন রাত সাড়ে ১০টায় বর মাথায় বিয়ে পাগড়ী পরে বরযাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতেও হাজির । ঠিক এমন সময় বাল্যবিবাহের আয়োজনের কথা গোপন সূত্রে জানতে পেয়ে রাত ১১টায় ইউএনও লোকজন নিয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে হাজির।  এসময় বর ও কনের পরিবারকে ডেকে বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে বোঝানোর পর উপজেলা প্রশাসন বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেয়।

ইউএনও মোঃ রুবেল রানা বলেন, ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ অনুয়ায়ী কনের পিতাকে ১০ হাজার ও বরের পিতাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করা হয়েছে। এছাড়াও  প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত  মেয়েকে বিয়ে দেওয়া যাবেনা এবং মেয়ের লেখাপড়া চালিয়ে –যাবেন বলে মেয়ের পিতা—মাতা অঙ্গীকারনামা প্রদান করেছেন।  

Place your advertisement here
Place your advertisement here