• বুধবার ২৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৯ ১৪৩১

  • || ১৬ মুহররম ১৪৪৬

Find us in facebook
সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

খাদ্যাভ্যাসের যেসব ভুলে ঝুঁকি বাড়ে ‘ডায়াবেটিসের’

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২৩  

Find us in facebook

Find us in facebook

প্রত্যেকের খাদ্যের চাহিদা এবং পছন্দ ভিন্ন। তবে অতিরিক্ত খাওয়া, ভুল খাদ্যাভ্যাস নানা রোগ তৈরি করতে পারে। এতে ডায়াবেটিসেরও ঝুঁকি বাড়াতে পারে। যেমন-

অতিরিক্ত চিনি খাওয়া: অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার খাওয়ার ফলে ওজন বাড়ে এবং ইনসুলিন প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে। যার ফলে টাইপ টু ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। চিনিযুক্ত খাবার এবং পানীয়ের মধ্যে সোডা, ক্যান্ডি, মিষ্টি এবং মিষ্টি সিরিয়াল উল্লেখযোগ্য।

অতিরিক্ত প্রক্রিয়াজাত শর্করা জাতীয় খাবার খাওয়া: প্রক্রিয়াজাত শর্করা জাতীয় খাবার যেমন- সাদা রুটি, সাদা ভাত এবং পাস্তা সহজে হজম হয় এবং রক্তে শর্করার মাত্রা তীব্রভাবে বৃদ্ধি করে। এসব খাবার অতিরিক্ত খেলে ইনসুলিন প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে এবং ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে।

ফাইবারের অভাব: প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ডায়েটরি ফাইবারের অভাব হলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে। এসব খাবারের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো শস্য জাতীয় খাবার, ফল, শাকসবজি, লেবু ইত্যাদি।

অস্বাস্থ্যকর চর্বি: টাইপ টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকির কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে স্যাচুরেটেড এবং ট্রান্স ফ্যাট জাতীয় খাবার, প্রক্রিয়াজাত খাবার, ভাজা খাবার এবং উচ্চ চর্বিযুক্ত দুগ্ধজাতপণ্য গ্রহণ। এসব খাবার স্থূলতা বাড়ায় এবং ইনসুলিন প্রতিরোধের ক্ষমতা কমায়।

অতিরিক্ত খাওয়া: অতিরিক্ত খেলে ওজন বেড়ে স্থূলতা হতে পারে, যা টাইপ টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়াতে পারে।

খাবার এড়িয়ে যাওয়া: অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, বিশেষ করে খাবার এড়িয়ে যাওয়ার ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা অস্থিতিশীল হতে পারে। দিনের পর দিন এই অভ্যাস রক্তে শর্করার নিয়ন্ত্রণ ব্যাহত করে।

প্রক্রিয়াজাত এবং ফাস্ট ফুড খাওয়া: ঘন ঘন প্রক্রিয়াজাত এবং ফাস্ট ফুড খাওয়ার ফলে ওজন বাড়ে, ইনসুলিন প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে। এর ফলে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। কারণ এসব খাবারে অস্বাস্থ্যকর চর্বি, মাত্রাতিরিক্ত শর্করা এবং সোডিয়াম থাকে।

সব শেষে এই মনে রাখতে হবে যে, সঠিক খাদ্যাভ্যাস সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here