• মঙ্গলবার   ২৯ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৯

  • || ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

Find us in facebook
সর্বশেষ:
দশ টাকায় টিকিট কেটে চক্ষু পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষ দুর্নীতিবাজদের ফের ক্ষমতায় দেখতে চায় না: হানিফ সরকারি কর্মচারীদের পাঁচ বছর পরপর সম্পদের বিবরণী জমা দিতে হবে না আগামী অক্টোবরে চালু হবে থার্ড টার্মিনাল ব্যাংক খাতের পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

মহামারীতেও নাগরিক সেবা পৌঁছে দিতে দৃঢ় প্রত্যয়ী ডিএসসিসি মেয়র   

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ জুলাই ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

করোনা মহামারীর মাঝেও নাগরিক সেবা পৌঁছে দিতে আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ী বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

গতকাল বুধবার রাতে রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ নম্বর রোডে নতুন আঙ্গিকে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে এ মন্তব্য করেন।

নতুন আঙ্গিকে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের সার্বিক দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, সন্ধ্যা ৬টা হতে আমাদের প্রাথমিক বজ্য সংগ্রহ সেবাদানকারীরা (প্রাইমারি কালেকশন সার্ভিস প্রোভাইডার -পিসিএসপি) বাসাবাড়ি ও গৃহস্থলী থেকে রাত ১০টার মধ্যে বর্জ্য সংগ্রহ করে আমাদের নির্ধারিত কন্টেইনার বা অন্তর্বর্তীকালীন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কেন্দ্রে (সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন-এসটিএস) নিয়ে যাবে এবং রাত ১০টা হতে ভোর ৬টার মধ্যে আমরা সব বর্জ্য মাতুয়াইলের ল্যান্ডফিলে নিয়ে যাবো। একই সাথে, রাত ৯টা হতে ভোর ৫টার মধ্যে আমাদের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা সকল রাস্তা ঝাড় দেবে। তারপর প্রয়োজনীয়তা অনুসারে মূল সড়কগুলোতে পানি ছিটানো হবে। তাই, নতুন এ কার্যক্রমের আওতায় সন্ধ্যা ৬টা হতে ভোর ৬টার মধ্যে আমরা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম শেষ করব।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ডিএসসিসি'র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ মোঃ ইমদাদুল হক, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর মোঃ বদরুল আমিন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম বাবলা ও সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর শিরিন গাফফার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এই সময় নির্বাচনী ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতির কথা স্মরণ করে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, নির্বাচনী ইশতেহারে আমি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমকে ঢেলে সাজানোর ওয়াদা করেছিলাম। সেই আলোকে আজ থেকে আমরা নতুন আঙ্গিকে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম শুরু করছি। এই কার্যক্রমের আওতায় এখন থেকে ৭৫টি ওয়ার্ডে একসাথে সন্ধ্যা ৬টা হাতে বর্জ্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হবে এবং সকাল ৬টার মধ্যে এই শহর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। আমি বিশ্বাস করি, একদিন ঢাকা শহর শুধু বাংলাদেশের মধ্যেই নয়, বিশ্বের বুকেও একটি পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত পাবে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here