• শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৬ ১৪৩১

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

Find us in facebook
সর্বশেষ:
মুজিবনগর সরকারের ভূমিকা ইতিহাসে অনন্য: রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিরা হস্ত‌ক্ষেপ করবে না: ওবায়দুল কাদের লালমনিরহাটে যুবলীগ কর্মীর পায়ের রগ কাটলেন যুবদল নেতা বাসার ছাদ থেকে পড়ে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু ঠাকুরগাঁওয়ে ঈদ-নববর্ষে ১০ জন নিহত, আহত ২ শতাধিক

গঙ্গাচড়ায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২০ মার্চ ২০২৩  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় এক কিশোরীকে গণধর্ষণের পরে হত্যা মামলায় আমৃত্যু দণ্ড পাওয়া এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার রাতে তাকে রংপুরর নগরীর সিও বাজার এলকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার আলমগীর (৩২) গঙ্গাচড়া উপজেলার মর্ণেয়া এলাকার হান্নান মিয়ার ছেলে। এই আসামিকে গ্রেফতারে নেতৃত্ব দেন এটিইউ রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরিফুল আলম। তাকে সহযোগিতা করেন মেট্রোপলিটন রংপুর কোতয়ালি থানার পুলিশ। গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গঙ্গাচড়া থানার ওসি দুলাল হোসেন। 

মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১৪ মে শাহিনা নামে এক তরুণীকে বাড়িতে একা পেয়ে কৌশলে বাড়ি থেকে ডেকে নির্জন স্থানে নিয়ে যায় আবুজার নামে এক যুবক। এরপর আবুজার ও তার বন্ধুরা শাহীনকে গণধর্ষণসহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে বাড়ির পাশে ধইঞ্চা ক্ষেতে লাশ রেখে পালিয়ে যায়। পরদিন স্থানীয়রা শাহিনার লাশ ধইঞ্চা ক্ষেতে দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় শাহীনার বাবা আইয়ুব আলী ওইদিন গঙ্গাচড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তৌহিদুল ইসলাম আবুজারসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।  গত বছরের  ২৪ নভেম্বর ৫ আসামীকে আমৃত্যু কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করেন রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক রোকনুজ্জামান ।  রায় ঘোষণার সময় দন্ডপ্রাপ্ত মর্ণেয়ার হাজীপাড়া তালপট্টির শামসুল আলমের ছেলে আবুজার (২১), আব্দুর রহমানের ছেলে আব্দুল করিম (২২), মতিয়ার রহমানের ছেলে নাজির হোসেন (২৫), মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে আমিনুর রহমান (২২) আদালতে উপস্থিত থাকলেও আসামী আলমগীর পলাতক ছিলেন। 

গঙ্গাচড়া থানার ওসি জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিকে কারাগারে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here