• শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

Find us in facebook

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য পর্যাপ্ত খাবার মজুত আছে: জেলা প্রশাসক

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২৪  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসান বলেছেন, রংপুর জেলার গংগাচড়া, কাউনিয়া ও পীরগাছা উপজেলার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ খাবার মজুত রয়েছে। এ পর্যন্ত এই তিন উপজেলার প্রায় চার হাজার মানুষ বন্যার কবলে পড়েছেন। গংগাচড়া, কাউনিয়া ও পীরগাছা উপজেলার জন্য নগদ ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

রোববার বিকেলে গংগাচড়া উপজেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে গজঘন্টা ইউনিয়ন পরিষদে ত্রাণ বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান তিনি।

জেলা প্রশাসক বলেন, গংগাচড়ার পানিবন্দি ৫ শতাধিক মানুরে মাঝে চাল, ডাল, তেলসহ নিত প্রয়োজনীয় জিনিস বিতরণ করা হয়েছে। নগদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ ত্রাণ সামগ্রী রয়েছে। আমরা বন্যায় ক্ষত্রিগ্রস্ত পরিবারগুলোর তালিকা তৈরির জন্য জনপ্রতিনিধিদের বলেছি। তালিকা পেলে বলা যাবে এ পর্যন্ত কতোগুলো পরিবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

গংগাচড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ তামান্না জানান, উপজেলার চর ইসলি, মর্ণেয়া, বিনবিনিয়ার চর, চর মুটুকপুর চিলাখাল এলাকার বাড়িঘরে নদীর পানি প্রবেশ করায় বাড়ি-ঘরে পানি উঠেছে। গংগাচড়ায় দ্বিতীয় দফা বন্যায় রাস্তা-ঘাট ভেঙে যাওয়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা ক্ষদিগ্রস্ত হয়েছে। ২ হাজার ৭০০ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি জানান, তিস্তা নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে যাওয়ার কারণে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। নদীর পানি বিভিন্ন দিক দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় কিছু কিছু এলাকায় ভাঙন দেখা দিয়েছে। আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে বিষটি জানিয়েছি। তারা আমাদেরকে সযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

Place your advertisement here
Place your advertisement here