ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অনুসরণ করে করোনা রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী হিসেবে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি ২৫০টি ভেন্টিলেটর সংগ্রহ করেছে
  • সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১০ ১৪২৮

  • || ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

Find us in facebook
সর্বশেষ:
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি আবেদন শুরু ২৮ জুলাই ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপের বিকল্প আসছে বাংলাদেশে সরকারি চাকুরেদের সম্পদের হিসাব দিতে হবে, বিধিমালা কার্যকরে উদ্যোগ দেশের মানুষের পুষ্টি নিরাপত্তায় হচ্ছে পুষ্টি বাগান পশুর নাড়ি-ভুঁড়ি রফতানি করে বছরে আয় ৩২০ কোটি টাকা

৬৪ জেলায় ৬৪ সচিব পেলেন ত্রাণ বিতরণের দায়িত্ব  

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

দেশে চলমান মহামারি করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ও অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সমন্বয় এবং তদারকি করার জন্য দেশের ৬৪ জেলায় সরকারের ৬৪ জন সচিবকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। 

গতকাল সোমবার (২০ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে। 

আদেশে আরও বলা হয়, নিয়োগ করা কর্মকর্তারা জেলার সংসদ সদস্য, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ ও প্রয়োজনীয় সমন্বয় সাধন করে করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার কাজ তত্ত্বাবধান ও পরিবীক্ষণ করবেন।

একইসঙ্গে এই ৬৪ জন সচিব জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পরিবীক্ষণ ও প্রয়োজনীয় সমন্বয় সাধন করবেন বলেও আদেশে জানানো হয়।

এদিন সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা ও ময়মনসিংহ জেলার জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মতবিনিময়কালে দেশের প্রত্যেক জেলায় একজন করে সচিবকে দায়িত্ব দেয়ার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। 

ওইসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার প্রকোপের কারণে সচিবালয়ে এখন খুব একটা কাজ নেই। তাই আমরা ৬৪ জেলায় ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সমন্বয় করার জন্য ৬৪ জন সচিবকে দায়িত্ব দিচ্ছি।’

এরপর বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়। আদেশে বলা হয়, দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিবরা সমন্বয় কাজে নিজ নিজ মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর ও সংস্থার উপযুক্ত সংখ্যক কর্মকর্তাকে সম্পৃক্ত করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের কারণে গোটা দেশে চলমান সাধারণ ছুটি ও অঘোষিত লকডাউনের ফলে অনেকেই বেকার হয়ে পড়েছেন। বিশেষত দেশের খেটে খাওয়া শ্রমজীবী সাধারণ মানুষেরা কষ্টে দিনাতিপাত করছেন। এ অবস্থায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সরকার এইসব মানুষদের জন্য ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি গ্রহণ করলেও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের অনেকের এসব ত্রাণের চাল চুরির সঙ্গে সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here