ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) শনিবার ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ১৭ জন, লালমনিরহাটে ১৯ জন, গাইবান্ধায় ১৬ জন, কুড়িগ্রামে ৭ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ১ জন ও বগুড়ার ১ জন রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ২৬ জন, কুড়িগ্রামে ১৪ জন, লালমনিরহাটে ১৩ জন ও গাইবান্ধায় ৭ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। গত ২৪ ঘণ্টায়   দেশে করোনাভাইরাসে আরো ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫১ জন।
  • রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, রংপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মোহম্মদ আফজালের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে, ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন
৩৩

সংশোধন না হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে:রংপুর বিআরটিএকে সেতুমন্ত্রী

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ আগস্ট ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুর বিআরটিএকে অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংশোধন না হলে ‘কঠোর ব্যবস্থা’ নেওয়া হবে।

ঢাকায় নিজের সরকারি বাসা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময় সভায় যুক্ত হয়ে মন্ত্রী বলেন, “রংপুর বিআরটিএতে অনিয়মের বিষয়ে কিছু কিছু পত্রিকায় রিপোর্ট হয়েছে। আমার কাছে অভিযোগ আছে, বাইরের দালাল এবং বিআরটিএ এর কারো কারো সহযোগিতায় একটি চক্র গড়ে উঠেছে। এই চক্র ভাঙতে হবে। বিআরটিএ এর সেবার মান বাড়াতে হবে। আমি সকলকে সতর্ক করছি, সংশোধন না হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।”

গতকাল শুক্রবার রংপুর সড়ক জোন, বিআরটিসি ও বিআরটিএ এর কর্মকর্তাদের সঙ্গে ‘শেষ মুহূর্তের ঈদ প্রস্ততি’ বিষয়ে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিআরটিসিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানের রূপ দিতে সরকার এর বহরে এক হাজার বাস যুক্ত করেছে জানিয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, “পাঁচ শতাধিক ট্রাকও যুক্ত হয়েছে। তবুও প্রতিষ্ঠানটি এখনো লোকসানের আবর্তে। এখনও মাঝে মাঝে ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। অনিয়মের দুষ্টচক্র এই প্রতিষ্ঠানকে পেয়ে বসেছে। আমি রংপুর অঞ্চলের সবাইকে সতর্ক করে বলছি, সেবার মান বাড়াবেন। অনিয়মের সকল পথ বন্ধ করুন। কোনো সমস্যা দেখা দিলে প্রশাসন আছে, মন্ত্রণালয় আছে, আমি নিজেও আছি।”

এই মহামারীর দুর্যোগে সবাইকে কর্মস্থলে থাকার সরকারি নির্দেশনার কথা মনে করিয়ে দিয়ে কাদের বলেন, “আপনারা নিজ নিজ কর্মস্থলে উপস্থিত থেকে যার যার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করবেন। এবারের ঈদযাত্রা ভিন্ন বাস্তবতায়, একদিকে করোনা সংক্রমণ অন্যদিকে বন্যা। দেশের এক তৃতীয়াংশ এলাকা বন্যার পানিতে প্লাবিত। শুরুটা উত্তরাঞ্চলে হলেও এখন মধ্যাঞ্চলে এবং দক্ষিণাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।”

মন্ত্রী বলেন, উত্তরাঞ্চলের অনেক সড়কে পানি উঠলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সড়ক যোগাযোগে বিচ্ছিন্নতা তৈরি হয়নি। পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেসব সড়ক সংষ্কারের কাজ শুরু করতে হবে।

রংপুর এলাকার সড়ক অবকাঠামো উন্নয়নকে শেখ হাসিনার সরকার গুরুত্বের সাথে নিয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, “কয়েকটি সড়ক চার লেইনে উন্নীত করার প্রাথমিক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। মহাসড়ক সার্বক্ষণিক ব্যবহারযোগ্য, চলাচলযোগ্য রাখতে হবে। গর্ত হওয়ার সাথে সাথে মেরামত করতে হবে। কাজে কোনো প্রকার শিথিলতা দেখানো যাবে না। প্রয়োজনে ঈদের দিনেও কাজ করতে হবে, সড়কে থাকতে হবে।”

সড়কের কাজের মান খারাপ হলে এখন থেকে ঠিকারদারদের পাশপাশি প্রকৌশলীদেরও জবাবদিহির মধ্যে থাকতে হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “জনগণের কষ্টার্জিত অর্থের সর্বোচ্চ ব্যবহারে কোনোরূপ অপচয় করা যাবে না।”

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর