সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

Find us in facebook
৮৩

রংপুর সিটি করপোরেশনের উন্নয়নে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

রংপুর সিটি করপোরেশনকে আধুনিক সিটি হিসেবে গড়তে সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের সমন্বয়ে সকলকে সম্মিলিতভাবে নগর উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার একেএম তরিকুল ইসলাম।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রংপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘নিরাপদ ও পরিচ্ছন্ন নগরী’ শীর্ষক নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, ‘সমন্বয় ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। রংপুর পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে আধুনিক চিন্তার প্রয়োগ ঘটাতে হবে। এর জন্য বিভিন্ন মহলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে সিটি করপোরেশন, প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে সকলকে সচেতন হয়ে সম্মিলিতভাবে নগরের উন্নয়নে কাজ করতে হবে।’

রংপুর প্রেসক্লাব আয়োজিত সংলাপ অনুষ্ঠানে ক্লাবের সভাপতি রশীদ বাবুর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক ছিলেন রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ ও রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, ‘নগরীর ৩১টি পয়েন্ট দিয়ে অবৈধভাবে অটোরিকশা প্রবেশ করায় বিভিন্ন সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এ জন্য ট্রাফিক ব্যবস্থা আরো উন্নত করতে হবে। অবৈধভাবে গড়ে ওঠা স্থাপনা উচ্ছেদ করতে হবে। আমরা অনেক কিছু করতে চাই। কিন্তু জনপ্রতিনিধিরা ইচ্ছা করলে সকল কাজ করতে পারেন না।’

তিনি আরও বলেন, রংপুর নগরীকে উন্নত নগরী হিসেবে গড়তে ২৬০ কোটি টাকার কাজ চলমান আছে। অচিরেই আরও শত কোটি টাকার কাজ শুরু হবে। নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কসহ খানাখন্দে ভরা রাস্তাঘাট আগামী বছরের জুনের মধ্যে নতুন করা হবে।

এ সময় মেয়র সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের সমন্বয়ে রংপুরের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন ও আধুনিক সিটি করপোরেশন গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে সকল রাজনৈতিক দল, প্রশাসন ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ নগরবাসীর পূর্ণ সহযোগিতা চান।

রংপুর সিটি করপোরেশন গঠিত হবার পর রংপুর নগরীতে সুপরিকল্পিত খেলার মাঠ, স্বাস্থ্য কেন্দ্র, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাসস্থান পর্যাপ্ত প্রশস্ত রাস্তা, ট্রাফিক ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। যতটুকু হয়েছে তা অপরিকল্পিতভাবে। এর প্রেক্ষিত সুপরিকল্পিত সিটি করপোরেশন বা স্মার্ট সিটি গড়ে তুলতে বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন সংলাপে অংশ নেওয়া আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, সিপিবি, জাসদের প্রতিনিধিরাসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

নাগরিক সংলাপে নগরীতে যানজট, দূষণ, জলাবদ্ধতা, ট্রাফিক, পরিবহন ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সৃষ্ট সমস্যা সমাধানসহ সুপরিকল্পিত নগর গড়তে বিভিন্ন প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়। প্রস্তাবনাগুলো আমলে নিয়ে সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের সমন্বয়ে নগর উন্নয়নের পরিকল্পনা শুরুর আশ্বাস দেওয়া হয়।

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –
Place your advertisement here
Place your advertisement here
এই বিভাগের আরো খবর