ব্রেকিং:
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরো দুই হাজার ৫৪৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৪৭ হাজার ১৫৩ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন আরো ৪০ জন। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৫০ জন। একদিনের আক্রান্ত ও মৃত্যুর পরিসংখ্যানে এটিই সর্বোচ্চ। ট্রেনের টিকিট শুধু অনলাইনেই বিক্রি হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। বসলো পদ্মাসেতুর ৩০তম স্প্যান: দৃশ্যমান সাড়ে ৪ কিলোমিটার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ছয়জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী, তিনজন গার্মেন্টসকর্মী ও একজন মাওলানা।
  • রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
করোনা রোধে জনপ্রতিনিধিদের আরো সম্পৃক্তের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব অফিস খুলছে আজ করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মানাতে চলবে মোবাইল কোর্ট পঙ্গপালের কারণে বিপর্যয়ের মুখে ভারত-পাকিস্তান দেশেই করোনাভাইরাসের পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্সিং সম্পন্ন আদিতমারীতে সব করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন
৪৯৩

রংপুরে অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ উদ্ধার 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরে মহাসড়কের ওপর থেকে বিবস্ত্র অবস্থায় অজ্ঞাত এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মরদেহের দশ গজ দূরের একটি ভবনের দেয়ালে ছোপ ছোপ রক্তের দাগ দেখা গেছে। এর একটু দূরে ওই যুবকের স্যান্ডেল ও পোশাক ছিল।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে নগরীর উত্তম পুরাতন বেতারপাড়া সংলগ্ন রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের ওপর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ বলছে, এটি রহস্যময় ঘটনা। আমরা সবকিছু খতিয়ে দেখছি। এটি সড়ক দুর্ঘটনা নাকি পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে দুর্ঘটনার নাটক সাজানো হয়েছে, তা এখন বলা যাচ্ছে না।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার জানান, রংপুর মহানগরীর উত্তম পুরাতন বেতার পাড়ার রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের ওপরে একটি মরদেহ দেখতে পায় টহল পুলিশ। খবর পেয়ে সেখানে পুলিশের ক্রাইম জোন সিআইডিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

তিনি জানান, সিআইডির ক্রাইম সিন এসে মরদেহের চারদিকে কর্ডন করে রাখে। মরদেহের পড়নে কোনো কাপড় ছিল না। তবে পাশের একটি ভবনের দেয়ালের ছোপ ছোপ রক্তের দাগ দেখা গেছে। এছাড়াও ২০ গজ দূরে স্যান্ডেল ও একটি শার্ট পাওয়া গেছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশ, সিআইডিসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন সংস্থা ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছে। বিষয়টি পূর্বপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড নাকি দুর্ঘটনা সেটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এদিকে স্থানীয়রা বলছেন, অজ্ঞাত যুবকটিকে হত্যা করে পরিকল্পিতভাবে এখানে নিয়ে এসে এমনভাবে ফেলে দেওয়া হয়েছে, যাতে সড়কে চলাচলরত গাড়ি তার মাথার উপর দিয়ে যায়। আর সে কারণেই যুবকের মাথা বিকৃত হয়ে গেছে মগজ অন্যত্র ছিটকে পড়েছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হাজিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, প্রয়োজনীয় তদন্ত কার্যক্রম শেষে মরদেহটি দুপুরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত এই ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন হয়নি। তবে তদন্ত চলছে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর