ব্রেকিং:
আজ ২৮ মে রংপুর মেডিকেলে কলেজে ১৭৮ নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জন করোনা শনাক্ত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নুরুন্নবী লাইজু। তিনি জানান, আক্রান্তরা হলেন, রংপুরের কাউনিয়া-২, শালবন-৩, মুলাটোল-১, ধাপ, কাকলি লেন-১, পূর্ব গুপ্তপাড়া-১, মেডিকেল মোড়-১, ধাপ জেল রোড-১, সেনপাড়া-১, সদ্যপূষ্করনী ইউনিয়ন -১, জেলা পুলিশ-১ এবং কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি-১ জন। করোনাভাইরাসের কারণে দুইমাস বন্ধ থাকার পর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের নাসিক থেকে ১৬শ’ মেট্রিক টন পেঁয়াজ নিয়ে দিনাজপুরের হিলি রেলস্টেশনে পৌঁছেছে মালবাহী একটি ট্রেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক শহীদুল ইসলাম শহীদ। কুড়িগ্রামের উলিপুরে বৌভা‌তের দাওয়াত খে‌য়ে বা‌ড়ি ফেরার প‌থে নৌকাডু‌বির ঘটনায় নি‌খোঁজ চারজ‌নের মর‌দেহ উদ্ধার ক‌রে‌ছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড দুই হাজারের বেশি করোনা রোগী সনাক্ত! মোট আক্রান্ত ৪০ হাজার ছাড়াল।
  • শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
সাধারণ ছুটি বাড়ছে না, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে চলবে অফিস! অবশেষে সীমিত আকারে চালু হচ্ছে গণপরিবহন অফিস খুললেও বয়স্ক-গর্ভবতীদের কর্মস্থলে যেতে হবে না নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ ভারত-চীন উত্তেজনার মধ্যেই ভারতে সেনা সম্মেলন শুরু
১৮৪

রংপুরের অভুক্ত কুকুরকে খাবার দিচ্ছেন সাদ এরশাদ 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুর শহরের বিভিন্ন এলাকার মোড়ে মোড়ে জটলা বেধে থাকা অভুক্ত বেওয়ারিশ কুকুরের মুখে প্রতিদিন খাবার তুলে দেন সাদ এরশাদ। গত ১৫দিন ধরে কুকুরগুলোকে খাবার খাওয়াচ্ছেন তিনি।

এই কার্যক্রমকে রুটিনে পরিণত করেছেন রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য রাহগীর আল মাহি ওরফে সাদ এরশাদ। প্রতিদিন সহধর্মিণী মহিমা এরশাদকে গাড়িতে করে নিয়ে বের হন। রাত ১১টা থেকে দেড়টা দুইটা পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়ান। যেখানেই কুকুরের জটলা দেখেন, সেখানেই নেমে পড়েন। নিজ হাতে রুটি, খিচুড়ি এগিয়ে দেন কুকুরের সামনে।

শুক্রবার (১৫ মে) মধ্যরাতে নগরীর দর্শনা মোড়, লালবাগ মোড় ও পার্কের মোড় এলাকায় প্রায় অর্ধশত কুকুরকে খাবার দিয়েছেন সাদ এরশাদ। সহধর্মিণীর উৎসাহে এ ধরণের কাজ করতে পেরে আনন্দিত এরশাদপুত্র।

করোনা দুর্যোগ পরিস্থিতিতে নয়, আগে থেকেই এমন কাজ করে আসছেন বলে দাবি করেন এমপি সাদের। তিনি বলেন, কিছুদিন আগেও মানুষের মধ্যে খাবারের জন্য আহাজারি ছিল। ওই সময়টা সবকিছু বন্ধ থাকায় দেখেছি ক্ষুধার্ত হাড্ডিসার কুকুরের কষ্ট। বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার মোড়ে অলিগলিতে অভুক্ত কুকুর জটলা বেধে থাকত। খুব খারাপ লাগত এমন করুণ অবস্থা দেখে।

গত ৩০ এপ্রিল ঢাকা থেকে রংপুর এসেই অভুক্ত এবং বেওয়ারিশ কুকুরের জন্য কাজ শুরু করেন। প্রতিদিন রাতে পাউরুটি নতুবা ভুনা খিচুড়ি সাথে কখনো রান্না করা মাছ মাংস নিয়ে বের হন। যেখানে কুকুরের জটলা চোখে পড়ে, সেখানেই গাড়ি থামিয়ে নেমে পড়েন। অভুক্ত কুকুরের মুখে খাবার তুলে দিয়ে পরিতৃপ্তি খোঁজেন, এসব কথা যোগ করেন সাদ এরশাদ।  

রংপুরে ৪৭টি পয়েন্টে অভুক্ত ও বেওয়ারিশ কুকুরের দেখা মিলবে জানিয়ে এই সংসদ সদস্য বলেন, আমি রংপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে একটি সভায় এই তথ্যটি পেয়েছি। সাতচল্লিশটি স্থানে বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা বেশি। ওই তালিকা দেখে প্রতিদিন বের হই। এখন তো আগের মতো হোটেল রেস্তোরা খোলা নেই। মানুষও বাহিরে বের হতে পারছে না। তাই কুকুরের ভাগ্যে সহসা খাবারও মিলছে না। তাই সাধ্যমত আমি এসব অভুক্ত অবলা প্রাণীর মুখে খাবার দিতে চেষ্টা করছি।

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর