ব্রেকিং:
দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪ হাজার ৬৬১ জনে। মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • বুধবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৩ ১৪২৭

  • || ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

Find us in facebook
সর্বশেষ:
২৭ জানুয়ারি করোনা ভ্যাকসিনেশনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী রংপুরে নির্মিত হচ্ছে আল্লাহর ৯৯ নামের স্তম্ভ সব জেলায় ৪-৫ দিনের মধ্যে ভ্যাকসিন পৌঁছে যাবে- পাপন দিনাজপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় চাচা ভাতিজাসহ নিহত ৩ কৃষিকে আকর্ষণীয় পেশায় পরিণত করছে `রাইস ট্রান্সপ্লান্টার`

তারাগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে মূল আসামিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মূল ধর্ষক ও তিন সহযোগীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে মোট গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাতজনে। গতকাল শুক্রবার রাতে এ বিষয়ে পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।

অপহরণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মূল আসামি কৃষ্ণ রায় (২৫) পিতা বিজয় রায়, সহযোগী মিন্টু কুমার (৩০) পিতা-জগদিশ রায়, কাঞ্চন রায় (২৭) পিতা-সুশীল চন্দ্র রায়। সবার বাড়ি শেরমস্ত খিয়ারজুম্মা গ্রামে।

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মূল আসামি মিঠুন শেখ (২৮) পিতা-মোজাহারুল ইসলাম, সহযোগিরা হলেন- নাসিম (২৫), নুরুজ্জামান (২৮), আলামিন (২৭)। তাদের সবাইকে নিজ নিজ বাড়ি দামোদুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীদের অভিভাবকের লিখিত অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। তারাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

অপহরণ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মশিউর জানান, সহযোগীদের উপজেলার শেরমস্ত খিয়ারজুম্মা গ্রাম থেকে শুক্রবার আটকের পর তাদের দেয়া তথ্যমতে ওইদিন সন্ধ্যায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলা থেকে মূল আসামি কৃষ্ণকে আটক করে অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে,গত ৬ ডিসেম্বর তারাগঞ্জ থেকে বাড়ি ফেরার পথে সে অপহরণ হয়।

অপরদিকে, ধর্ষণ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি তদন্ত শুকুর আলী জানান, গত সোমবার রাত ৯টায় সয়ার ইউনিয়নের কাজীপাড়া গ্রামে ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শুক্রবার মূল আসামি ও তার সহযোগিদেরকে তাদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ধর্ষণের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার। ধর্ষণের সাথে জড়িতদের কোন ছাড় নেই। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here