ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ২৬ জন, কুড়িগ্রামে ১৪ জন, লালমনিরহাটে ১৩ জন ও গাইবান্ধায় ৭ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। গত ২৪ ঘণ্টায়   দেশে করোনাভাইরাসে আরো ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫১ জন।
  • শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, রংপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মোহম্মদ আফজালের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে, ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন
৮০৫

খাবার শেষ হয়ে গেলে আমাকে জানাবেন: রংপুরের এসপি বিপ্লব 

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৬ এপ্রিল ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

করোনার সংক্রমণ রোধে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব মেনে অসহায় দুস্থ দিনমজুরদের চেয়ারে বসিয়ে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছেন রংপুর জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার। এসময় এসপি বিপ্লব বলেন, আপনারা বাড়িতে থাকুন। খাবার শেষ হয়ে গেলে আমাকে জানাবেন। আবারো আমরা খাবার দিয়ে যাবো। জনসমাগম করে আমরা কোথাও ত্রাণ বিতরণ করছি না। অসহায় মানুষের কাছে গিয়ে তাদের হাতে ত্রাণ তুলে দিচ্ছি। এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

করোনা সংকট শুধু বাংলাদেশে নয়, এই সংকট বিশ্বজুড়ে। প্রাণঘাতী করোনা পরিস্থিতিতে সকলকে ঘরে থাকার আহ্বান জানান বিপ্লব কুমার সরকার।

তিনি বলেন, প্রতিটি থানা পর্যায়ে অসহায় হত-দরিদ্র প্রত্যেক পরিবারকে চাল, ডাল, আটা, আলু, পেঁয়াজ, সাবান ও তেলসহ খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট দেয়া হচ্ছে। যতদিন করোনা সংকট থাকবে, এই কার্যক্রম ধারাবাহিক ভাবে চলবে। চাহিদা অনুযায়ী আরো ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে। কিন্তু সকলকে নিরাপদে ঘরে থাকতে হবে। প্রয়োজনে আমরা বাড়িতে বাড়িতে ত্রাণ পৌঁছে দেব।

গতকাল রোববার (৫ এপ্রিল) বিকেলে রংপুরের বদরগঞ্জ থানা প্রাঙ্গণে দুই শতাধিক পরিবারের সদস্যদের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. আবু মারুফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) মারুফ আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) এটিএম আরিফ হোসেন, বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান হাওলাদার, তারাগঞ্জ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিন্নাত আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে দুপুরে তারাগঞ্জ, গঙ্গাচড়া ও রংপুর সদর কোতোয়ালী থানা প্রাঙ্গণে ছয় শতাধিক অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়। শনিবার জেলার মিঠাপুকুর, বৈরাতি, পীরগঞ্জ ও ভেন্ডাবাড়িতে আরো আটশ পরিবারকে এই খাদ্য সামগ্রী দেন রংপুর জেলা পুলিশ। প্রতিটি স্থানে ত্রাণ সহায়তা প্রদানের সময় অসহায়, দুস্থ ও হত-দরিদ্র দিনমজুরদের চেয়ার বসিয়ে তাদের এই সহায়তা প্রদান করা হয়। 

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর