ব্রেকিং:
আজ ২৮ মে রংপুর মেডিকেলে কলেজে ১৭৮ নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জন করোনা শনাক্ত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নুরুন্নবী লাইজু। তিনি জানান, আক্রান্তরা হলেন, রংপুরের কাউনিয়া-২, শালবন-৩, মুলাটোল-১, ধাপ, কাকলি লেন-১, পূর্ব গুপ্তপাড়া-১, মেডিকেল মোড়-১, ধাপ জেল রোড-১, সেনপাড়া-১, সদ্যপূষ্করনী ইউনিয়ন -১, জেলা পুলিশ-১ এবং কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি-১ জন। করোনাভাইরাসের কারণে দুইমাস বন্ধ থাকার পর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের নাসিক থেকে ১৬শ’ মেট্রিক টন পেঁয়াজ নিয়ে দিনাজপুরের হিলি রেলস্টেশনে পৌঁছেছে মালবাহী একটি ট্রেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক শহীদুল ইসলাম শহীদ। কুড়িগ্রামের উলিপুরে বৌভা‌তের দাওয়াত খে‌য়ে বা‌ড়ি ফেরার প‌থে নৌকাডু‌বির ঘটনায় নি‌খোঁজ চারজ‌নের মর‌দেহ উদ্ধার ক‌রে‌ছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড দুই হাজারের বেশি করোনা রোগী সনাক্ত! মোট আক্রান্ত ৪০ হাজার ছাড়াল।
  • শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
সাধারণ ছুটি বাড়ছে না, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে চলবে অফিস! অবশেষে সীমিত আকারে চালু হচ্ছে গণপরিবহন অফিস খুললেও বয়স্ক-গর্ভবতীদের কর্মস্থলে যেতে হবে না নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ ভারত-চীন উত্তেজনার মধ্যেই ভারতে সেনা সম্মেলন শুরু
১১২

কর্মহীন হয়ে পড়েছে পীরগাছার শতাধিক আদিবাসী পরিবার   

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩০ মার্চ ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

রংপুরের পীরগাছায় শতাধিক আদিবাসী পরিবার কর্ম হীন হয়ে পড়েছে। ফলে পরিবারগুলো খাদ্য সংকটে রয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে এখন পর্যন্ত তাদের কোনো সহযোগিতা করা হয়নি। অথচ যেকোনো দুর্যোগে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে তাদেরকেই সহযোগিতা করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আদিবাসীরা বংশপরম্পরায় খাল, বিল, নদী ও ডোবাসহ বিভিন্ন জলাশয় থেকে কুঁচিয়া সংগ্রহ করে বাজারে বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তবে আগে বাজারে কুঁচিয়ার তেমন চাহিদা ছিল না। দামও ছিল কম। বিদেশে রফতানি শুরু হওয়ার পর থেকে কুঁচিয়ার কদর বেড়ে যায়। দামও ভালো পাওয়া যাচ্ছিল। কুঁচিয়া কেনার জন্য উপজেলা কল্যাণী ইউনিয়নের তালুক কল্যাণী গ্রামে গড়ে উঠে আড়ত। স্থানীয় আড়ত থেকে প্রতি সপ্তাহে প্রচুর পরিমাণে কুঁচিয়া বিদেশে রফতানির জন্য ঢাকায় পাঠানো হতো। কিন্তু গত বছরের ডিসেম্বরে চীনে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের পর চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকেই রফতানি বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয় আড়তে আর কুঁচিয়া ক্রয় করা হয় না।

জানা যায়, উপজেলার ইটাকুমারী ইউনিয়নের আদিবাসী পল্লীর প্রায় শতাধিক পরিবার কুঁচিয়া ধরে স্থানীয় আড়তে বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। আদিবাসীদের সংগ্রহ করা কুঁচিয়া চীন, হংকং, তাইওয়ানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানি হয়ে আসছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রভাবে আদিবাসীদের সংগ্রহ করা কুঁচিয়া রফতানি বন্ধ হয়ে যায়। ফলে পরিবারগুলো চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে কর্মহীন হয়ে পড়ে।

আদিবাসী পল্লির কুঁচিয়া শিকারি নিমাই বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে আড়তে কুঁচিয়া কেনা বন্ধ রয়েছে। গত আড়াই মাস থেকে বেকার বসে আছি। কোথাও থেকে কোন সহযোগিতাও পাচ্ছি না।’

আদিবাসী শিকারি জানান, ‘কাজ করলে খাবার জোটে, না করলে নাই। কর্ম নেই, তাই কারো কাছে ১০০ টাকা ধার চাইলেও দিবে না।’

আড়তদার আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবরের পর বিদেশে কুঁচিয়ার চাহিদা নেই, তাই রফতানি বন্ধ রয়েছে। ফলে স্থানীয়ভাবে আদিবাসীদের সংগৃহীত কুঁচিয়া আর ক্রয় করা হচ্ছে না।’

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর