ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সোমবার রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. একেএম নুরুন্নবী লাইজু এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন- রমেকের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে রংপুরে ২৫ জন, গাইবান্ধায় ৬, কুড়িগ্রামে ২ এবং লালমনিরহাটে ২ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়। দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩৯১ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৯ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৮৬ হাজার ৮৯৪ জন।
  • মঙ্গলবার   ১৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪২৭

  • || ২৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
রংপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা আক্রান্ত মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু অনুমতি দেয়া পাঁচ বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কোভিড-১৯ পরীক্ষা স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর ২০২০ সালে নিবন্ধিত হজযাত্রীদের জন্য ৮ নির্দেশনা দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয় বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি সার্বক্ষণিকভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খোজ খবর নিচ্ছেন-পানিসম্পদ উপমন্ত্রী মানবদেহে কোভিড ভ্যাকসিনের সফল প্রয়োগের দাবি রাশিয়ার!
১৯০

‘আয়কর না বাড়ালে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার ভিশন বিলম্বিত হবে’

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩০ নভেম্বর ২০১৯  

Find us in facebook

Find us in facebook

আয়কর না বাড়ালে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার ভিশন বিলম্বিত হবে বলে জানিয়েছেন রংপুর কর অঞ্চলের কমিশনার মো. আবদুল লতিফ।

তিনি বলেন, সরকারের রাজস্ব খাত সমৃদ্ধ করতে সকলকে কর প্রদানের ব্যাপারে সচেতন করা হচ্ছে। আয়কর দেয়া আমাদের নাগরিক ও সাংবিধানিক দায়িত্বের একটি অংশ। বছরে নূন্যতম আড়াই লাখ টাকার উর্ধ্বে আয় হলে নিয়মানুযায়ী কর দিতে হয়। কিন্তু আমরা আয়কর দেই না। এ অবস্থান থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। কেননা আয়কর না বাড়ালে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার ভিশন বিলম্বিত হবে।

শনিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে কর অঞ্চল রংপুর আয়োজিত আয়কর দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আবদুল লতিফ বলেন, করযোগ্য সবাই যদি আয়কর দিত তবে দেশ আরও আগে উন্নত হত। নিবন্ধিত করদাতাদের সবাই নিয়মিত আয়কর দেন না। দেশে প্রায় সাড়ে তিন কোটি মানুষের আয়কর দেয়ার সামর্থ্য রয়েছে। অথচ আয়কর দেন মাত্র ২২ লাখ মানুষ। আয়কর নিয়ে অবহেলা ও অসচেতনতা দূর হলে দেশ রাজস্ব খাতে আরও সমৃদ্ধ হবে। আমাদের উন্নয়নও তরান্বিত হবে।

কর কমিশনার আবদুল লতিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (সদর দফতর ও প্রশাসন) মহিদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) মারুফ আহম্মেদ, রংপুর কর অঞ্চলের অতিরিক্ত কর কমিশনার শেখ মনিরুজ্জামান। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন উপ-কর কমিশনার সুমন কুমার বর্মণ।

এরআগে সকালে ‘‘সমৃদ্ধ সোনালি দিন, আনতে হলে আয়কর দিন’’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে রংপুর কর অঞ্চলের কার্যালয় চত্বরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে আয়কর দিবসের শোভাযাত্রার উদ্বোধন করা হয়।

পরে সেখান থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি বের হয়ে রংপুর মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রা থেকে আয়কর প্রদানে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিলি করা হয়।

শোভাযাত্রা শেষে কর অঞ্চলের কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা আয়কর প্রদানের ব্যাপারে জনসচেতনা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করে অতিথিরা বলেন, সমৃদ্ধ দেশ গড়তে যথাযথ আয়কর দিতে হবে।

এসময় রংপুর কর অঞ্চলের কর্মকর্তারা ছাড়াও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার করদাতারা উপস্থিত ছিলেন।

Place your advertisement here
Place your advertisement here
রংপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর