ব্রেকিং:
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরো দুই হাজার ৫২৩ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। যা একদিনের আক্রান্তের পরিসংখ্যানে সর্বোচ্চ। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৪২ হাজার ৮৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে।
  • শনিবার   ৩০ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
রোববার থেকে গণপরিবহন চালুর প্রস্তুতি নিচ্ছে মালিক-শ্রমিকরা লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যার ঘটনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দুঃখ প্রকাশ টেকনিশিয়ানসহ আরো ৫ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবে সরকার ঢাবি ছাত্রলীগ নেতার ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রংপুরে দোয়া মাহফিল মানবিকতার উজ্জল দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করলেন লালমনিরহাটের এসপি আবিদা
৩৩৯

আল-আমিনের পছন্দ মাশরাফি-সাকিবের নেতৃত্ব

দৈনিক রংপুর

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৮  

Find us in facebook

Find us in facebook

সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে স্মরণীয় জয় পেল বাংলাদেশ। জয়ের আনন্দে এখনো উদ্বেলিত ক্রিকেটপ্রেমীরা। আর এরই মধ্যে অনুভূতি ও অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে প্রতিবেদকের সঙ্গে কথা হয় এক তারকা ক্রিকেটারের। যার অভিষেকও হয়েছিল টেস্ট ক্রিকেটের মাধ্যমেই। তিনি ঝিনাইদহের ছেলে ও ডানহাতি মিডিয়াম ফাস্ট বোলার আল-আমিন হোসেন।সঙ্গে আড্ডার সময় আল-আমিনের মন ছিল যেন খেলার মাঠেই। তারপরেও স্বভাব সুলভ জানান তিনি, ‘ভালো আছি’। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নয় বছর পর টেস্টে জয় পেল বাংলাদেশ- এ সম্পর্কে আল-আমিন বলেন, এটা একটা স্মরণীয় জয়। এ জয়টা দরকার ছিল। বাংলাদেশ টেস্টে ভালো করা শুরু করেছে। এর ধারাবাহিকতা থাকবে আশা করি।

আপনি কোন ফরমেটে খেলতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন?

আল-আমিন: আমি আসলে সব ফরমেটেই খেলেত পছন্দ করি। স্পেসেফিক কোনো ফরমেটে নয়।

অনেক দিন হলো আপনি জাতীয় দলের বাইরে। দলে ফেরার ব্যাপারে কতটা আত্মবিশ্বাসী?

আল-আমিন: যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। ইনশাআল্লাহ্‌ খুব শিগগিরই দলে ফিরবো।

দলে ফেরার জন্য কি করছেন?

আল-আমিন: আমি যথেষ্ট প্রাক্টিসের ওপর আছি। নিয়মিত প্রাক্টিস ম্যাচগুলো খেলছি।

বর্তমানে এইচপি দলে আছেন, এখানে নিজেকে কতটা মেলে ধরতে পারছেন?

আল-আমিন: প্রথমে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ, আমাকে হাই-পারফোর্মেন্স দলে খেলার সুযোগ দেয়ার জন্য। এখানে নিয়মিত খেলছি। বাংলাদেশ জাতীয় লিগ, জাতীয় ক্রিকেট লিগে ভালো করছি।

ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফির রাজনীতি নিয়ে কিছু বলুন...

আল-আমিন: মাশরাফি ভাই একজন বড় লিডার। তিনি বড় ভাই, সহযোদ্ধা। ক্রিকেটারও। খেলার পাশাপাশি তাদেরও রাজনীতিতে আসা উচিত মনে করি। আর মাশরাফি ভাই তাই করছে। তাকে ধন্যবাদ আর তার জন্য শুভ কামনা।

কার নেতৃত্বে খেলতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতেন?

আল-আমিন: আমি সাধারণত মাশরাফি ভাই ও সাকিব ভাই দু’জনের নেতৃত্বই পছন্দ করি। আর তাদের নেতৃত্বে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি।

সামনেই ক্রিকেট বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ নিয়ে আপনার ভাবনা কি?

আল-আমিন: বাংলাদেশ ওয়ানডেতে বরাবর বেশ ভালো। তাই আমাদের সামনে বড় একটা সুযোগ। পারফর্মেন্স যেমন আছে এমন থাকলে সেমিফাইনাল বাঁ ফাইনালে যাওয়া সম্ভব।

বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়ায় কতটা আত্মবিশ্বাসী?

আল-আমিন: আমি মনে করি বিশ্বকাপ অনেক বড় একটা প্লাটফর্ম। এখানে অভিজ্ঞতার দাম অনেক। আমি আগেও আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছি। তাই মনে করি সুযোগ পাবো। জাতীয় পতাকা বুকে নিয়ে খেলতে নামার ইচ্ছা সবার। আর এর অনুভূতিটা আসলে বোঝানো যাবে না।

প্রতিবেদকের মাধ্যমে কোনো বার্তা দিতে চান ক্রিকেট সমর্থকদের?

আল-আমিন: প্রতিবেদকের মাধ্যমে আমি ক্রিকেট সমর্থকদের বলতে চাই- আপনারা আছেন বলেই আমরা আজ এত বড় হতে পেরেছি। আপনাদের কাছে একটাই অনুরোধ কোনো কিছু যাচাই-বাছাই না করে আমাদের ভুল বুঝবেন না। তবে আমরাও মানুষ আমাদেরও ভুল হয়।

প্রতিবেদকে​​​​​ সময় দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।

আল-আমিন: প্রতিবেদকে এবং পাঠকদেরও ধন্যবাদ। আমি প্রতিবেদকের উজ্জ্বল সাফল্য কামনা করি।

Place your advertisement here
Place your advertisement here