ব্রেকিং:
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে টিকা নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
  • শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪২৭

  • || ২১ রজব ১৪৪২

Find us in facebook
সর্বশেষ:
উন্নয়ন প্রকল্পে বেরোবি ভিসির অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে ইউজিসি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা আসছেন বৃহস্পতিবার করোনা: দেশে আপাতত টিকার ট্রায়াল হচ্ছে না করোনা: দেশে আপাতত টিকার ট্রায়াল হচ্ছে না প্রথম ধাপে কোভ্যাক্সের এক কোটি ৯ লাখ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ

আইটি খাতের বৈদেশিক আয় আনা যাবে স্থানীয় ডিজিটাল ওয়ালেটে

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

Find us in facebook

Find us in facebook

আইটি খাতের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আয় সহজে প্রত্যাবাসনের জন্য স্থানীয় মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডাররা সুযোগ পেলেন। এখন থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের লাইসেন্সপ্রাপ্ত মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারগুলো যেমন—বিকাশ, রকেট এবং এ জাতীয় প্রতিষ্ঠানের ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে বৈদেশিক আয় প্রত্যাবাসন এবং তা আইটি খাতের রপ্তানিকারকদের ওয়ালেট হিসাবের মাধ্যমে করা যাবে। প্রচলিত ব্যবস্থায় মূলত শুধু ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে এ জাতীয় আয় প্রত্যাবাসন করার সুযোগ ছিল।

গতকাল এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। যাতে মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের কয়েকটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের বিদেশি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে হবে। অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডার, ডিজিটাল ওয়ালেট প্রোভাইডার কিংবা এগ্রিগেটরেরা বিদেশি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডার হিসেবে কাজ করতে পারবে। মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডাররা অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকে সেটেলমেন্ট একাউন্ট পরিচালনা করবে। বিদেশি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারদের মাধ্যমে প্রাপ্ত বৈদেশিক মুদ্রা নষ্ট হিসাবে জমা হওয়ার পর তা অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের সেটেলমেন্ট হিসাবে টাকায় স্থানান্তর করবে। সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্টে জমাকৃত আইটি সেবা খাতের আয় সংশ্লিষ্ট রপ্তানিকারকের নামে পরিচালিত ডিজিটাল ওয়ালেটে জমা হবে। বিদেশি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডাররা এদেশে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক বৈদেশিক মুদ্রা কিংবা টাকা হিসাব পরিচালনা করতে পারবে। বিদেশি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারদের নামে পরিচালিত হিসাবে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক ওভারড্রাফ্ট সুবিধা প্রদান করতে পারবে। তবে ওভারড্রাফ্ট সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে পেমেন্ট গ্যারান্টি থাকতে হবে বলে সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে।

রপ্তানিকারকরা বৈদেশিক মুদ্রায় রিটেনশন কোটা সুবিধা পেয়ে থাকে। আলোচ্য সুবিধা এক্ষেত্রেও থাকবে। মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্টে অর্থ জমা করার পূর্বে বৈদেশিক মুদ্রার প্রয়োজনীয় অংশ রিটেনশন কোটা হিসাবে জমা করা যাবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। একই দিনে অন্য একটি প্রজ্ঞাপন বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে নিয়ে আসা বৈদেশিক মুদ্রায় লেনদেন সুবিধা প্রদান করা হয়েছে। এক্ষেত্রে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক বিদেশি ডিজিটাল ওয়ালেটের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে পারবে মর্মে প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে।

নতুন নীতিমালার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক জন কর্মকর্তা বলেন, ২০১১ অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলোকে বিদেশি অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডারদের সঙ্গে স্থায়ী সমঝোতার ভিত্তিতে সেবা খাতের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আয় প্রত্যাবাসনের নীতিমালা বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে জারি করা হয়। আইটি খাতের লেনদেনের সংখ্যা বিবেচনায় বিশেষ করে ফ্রিল্যান্সারদের আয় সহজে নিয়ে আসার লক্ষ্যে মোবাইল ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের প্রত্যাবাসন কার্যক্রমে অংশ করা হয়েছে।

Place your advertisement here
Place your advertisement here