ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) শনিবার ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ১৭ জন, লালমনিরহাটে ১৯ জন, গাইবান্ধায় ১৬ জন, কুড়িগ্রামে ৭ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ১ জন ও বগুড়ার ১ জন রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ২৬ জন, কুড়িগ্রামে ১৪ জন, লালমনিরহাটে ১৩ জন ও গাইবান্ধায় ৭ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। গত ২৪ ঘণ্টায়   দেশে করোনাভাইরাসে আরো ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫১ জন।
  • রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Find us in facebook
সর্বশেষ:
মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, রংপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মোহম্মদ আফজালের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে, ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন
৬৭৩

অর্থনৈতিক নিরাপত্তায় নবম স্থানে বাংলাদেশ   

– দৈনিক রংপুর নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৯ মে ২০২০  

Find us in facebook

Find us in facebook

করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে সারা বিশ্বের অর্থনৈতি যখন টালমাটাল অবস্থা, সেখানে বাংলাদেশের অর্থনৈতি তুলনামূলকভাবে ভালো অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছে লন্ডন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ইকোনমিস্ট। প্রতিষ্ঠানটির এক জরিপে সুরক্ষিত অর্থনীতির দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান নবম স্থানে রয়েছে।
মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) বিপরীতে সরকারি দেনার পরিমাণ, মোট বৈদেশিক ঋণ এবং ঋণের সুদ ও অন্যান্য খরচকে আমলে নিয়ে এই জরিপ করা হয়েছে। কোভিড-১৯ এর কারণে বিশ্ব অর্থনীতি যখন হুমকির মুখে তখন ৬৬টি দেশের অর্থনীতি নিয়ে গবেষণা চালিয়ে বাংলাদেশ সম্পর্কে এমন তথ্য দিল গণমাধ্যমটি।

সম্প্রতি প্রকাশিত এই জরিপে ভারতের অবস্থান ১৮তম, পাকিস্তানের ৪৩তম এবং শ্রীলঙ্কার অবস্থান ৬১তম। জরিপে দেখা যায়, চীন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের অর্থনীতির চেয়েও কম ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়- রফতানি খাতে সবচেয়ে বড় ধ্স অব্যাহত থাকবে। এর আগে জ্বালানি তেলের রেকর্ড দরপতনের কারণে উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর অর্থনীতি তাদের চলতি বাজেটে ৩ শতাংশের বেশি ঘাটতির মুখে পড়বে বলে আইএমএফের পূর্বাভাষে বলা হয়েছে। গতবছর এসব দেশের বাজেট উদ্বৃত্ত ছিল ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। সাধারণত যখন রফতানি আয় কমে তখন প্রায় সকল দেশই বিদেশি ঋণ নিয়ে সেই ঘাটতি পূরণ করার চেষ্টা করে। তবে বিদেশি বিনিয়োগ প্রত্যাহার এবং মূলধনের বহিঃমুখী প্রবাহের চাপে ঋণের খরচও বেড়ে যেতে পারে। যা নগদ অর্থ সঙ্কটে থাকা তুলনামূলক ধনী আরব দেশগুলোকেও চাপের মুখে ফেলবে।

মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) বিপরীতে সরকারি দেনার পরিমাণ, মোট বৈদেশিক ঋণ এবং ঋণের সুদ ও অন্যান্য খরচকে আমলে নেয়া হয়েছে এই জরিপে। সেই সঙ্গে একটি দেশের বৈদেশিক মুদ্রা ও সম্পদের রিজার্ভ কতটুকু সুরক্ষা দিতে পারে এই বিষয়টিও বিবেচনা করা হয়েছে।

দ্যা ইকোনমিস্টের বিশেষজ্ঞদের মতে, চলমান সঙ্কটের মধ্যেও বাংলাদেশ অপেক্ষাকৃত নিরাপদ অবস্থানে রয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশ্বের কোন দেশ কতটুকু অর্থনৈতিক নিরাপদ, সেটা ইকোনমিস্টের তালিকায় প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। কোভিড-১৯ প্রধানত তিনভাবে উদীয়মান অর্থনীতিগুলোকে ক্ষতির মুখে ফেলেছে। এগুলো হলো; জনগণের চলাচলের স্বাধীনতা হরণ, রফতানি আয়ে ধ্স সৃষ্টি এবং বিদেশি পুঁজি প্রবাহে বাধা সৃষ্টি।

Place your advertisement here
Place your advertisement here
উন্নয়ন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর